রাত বাড়লেই সেক্স প্রোডাক্টের বিক্রি বাড়ে ভারতে!

অপসংস্কৃতি’ শিশুমননে বিরূপ প্রতিক্রিয়া ফেলছে দিনভর কন্ডোমের বিজ্ঞাপন! ‘সংস্কারি সরকার’-এর তথ্য এবং সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ভারতীয় চ্যানেলে নিষিদ্ধ হয়েছে নিরোধ বিজ্ঞাপন। নিন্দুকরা বলছেন, কন্ডোম বিজ্ঞাপনেই ‘নিরোধ’ পরিয়েছে সরকার।

অনেকের মত, কন্ডোম বিজ্ঞাপন সম্প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করে আদতে ‘এইডস’ বিরোধী প্রচারেই প্রতিবন্ধকতা তৈরি করেছে সরকার। ‘সংস্কারধর্মী’রা অবশ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তকে একশোয়-একশো দিয়েছে। কন্ডোম বিজ্ঞাপনের এই তর্জার মধ্যেই চোখ কপালে তুলেছে এক সমীক্ষার ফল।

 

দ্যাটসপার্সনাল ডটকম (thatspersonal.com)-এর সমীক্ষা অনুযায়ী দেখা যাচ্ছে, ভারতীয়রা নাকি সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ‘সেক্স প্রোডাক্ট’-এর বিজ্ঞাপনই দেখেন না। এর কারণ বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, টেলিভিশনের বদলে এখন মানুষ নেট সার্ফ করেই যৌনতা বিষয়ক পণ্যের যাবতীয় তথ্য জেনে নেন। ওই সমীক্ষার দাবি, নারীরা রাত ১০টা থেকে ১টা এই তিন ঘণ্টা সময়কে ‘সেক্স প্রোডাক্ট’ সার্চিংয়ের জন্য বেছে নেন। এই সমীক্ষা আরও বলছে, ‘সেক্স প্রোডাক্ট’-নিয়ে দরাদরি এড়াতে ভারতীয়রা না কি অনলাইন শপিংয়েই বেশি মন দিয়েছে।

 

বিসনেস টুডে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বের ‘সেক্স অ্যাক্টিভ’ দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম ভারত। এ দেশে প্রতিদিন গড়ে ১০ কোটি মানুষ যৌনতায় লিপ্ত হন। আর সেই কারণেই বিগত বছরের তুলনায় চলতি বছরে বিক্রি বেড়েছে ‘সেক্স প্রোডাক্ট’-এর।

 

সমীক্ষা অনুযায়ী, ভারতের মধ্যে সবথেকে বেশি ‘সেক্স অ্যাক্টিভ’ রাজ্য হল মহারাষ্ট্র। দ্বিতীয় স্থানে আছে কর্নাটক। এই তালিকায় তিনে আছে পশ্চিমবঙ্গ। যদিও সমীক্ষা বলছে, নবরাত্রির সময় গুজরাট-এ ‘সেক্স প্রোডাক্ট’-এর চাহিদা তুলনায় বাড়ে।

উল্লেখ্য, সেক্স প্রোডাক্টের বিক্রি সর্বাধিক হয় ভ্যালেনটাইন ডে-তে। সূত্র: জি নিউজ।

your add hare

Comments are closed.

     আরো খবর

Our Like Page