হোয়াটসঅ্যাপে আপত্তিজনক ছবি বা ভিডিও কীভাবে লুকিয়ে রাখবেন?

হ্যাঁ, হোয়াটসঅ্যাপে আসা আপত্তিজনক ছবি বা ভিডিও লুকিয়ে রাখা সম্ভব। আপনার বন্ধু-বান্ধবীর সঙ্গে কাটানো কোনও দুষ্টু-মিষ্টি মুহূর্তের ছবি আপনি চাইলে লুকিয়ে রাখতেই পারেন। এর ফলে আপনার স্মার্টফোন অন্য কারও হাতে চলে গেলেও আপনার হোয়াটসঅ্যাপে আসা গুরুত্বপূর্ণ ছবি বা আপত্তিজনক ভিডিও তিনি দেখতে পাবেন না।

নিশ্চিন্ত হলেন তো? একটা কথা মানতেই হবে যে এখন হোয়াটসঅ্যাপ আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অঙ্গ। বন্ধুদের পাঠানো প্রচুর মেসেজ, ভিডিও কলিং ছাড়াও আরও নানাবিধ গুরুত্বপূর্ণ কাজেও প্রয়োজন পড়ে হোয়াটসঅ্যাপের।

 

মনে রাখতে হবে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ মারফত যত ছবি বা ভিডিও সারাদিন আপনার স্মার্টফোনে ঢুকে, সেগুলো জমা হয় ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজে। এবার এর মধ্যে অনেকেই এমন কিছু ছবি বা ভিডিও পাঠান, যেগুলো বাড়ির অন্যদের চোখে পড়ে গেলে আপনাকে অযথা হয়রানির মুখে পড়তে হবে। এই ঝঞ্ঝাটের হাত থেকে বাঁচার উপায়ই আজ জানাব আপনাদের।

১. প্রথমেই চলে যান গুগল প্লে স্টোরে। আপনার স্মার্টফোনের জন্য কোনও একটি ফাইল এক্সপ্লোরার অ্যাপ নামান। যদি আপনার ফোনে ফাইল ম্যানেজার থাকে, তাহলে অবশ্য কোনও থার্ড পার্টি অ্যাপ ডাউনলোড করার দরকার নেই।

 

২. ফাইল ম্যানেজারে গিয়ে দেখুন ‘হোয়াটসঅ্যাপ’ বলে একটি ফোল্ডার রয়েছে। তার ভিতরে রয়েছে ‘মিডিয়া’ বলে আরেকটি ফোল্ডার।

৩. ‘মিডিয়া’ ফোল্ডারের ভিতর রয়েছে ‘WhatsApp Images’ নামের একটি ফোল্ডার।

৪. এবার ওই ফোল্ডারটির উপর আপনার আঙুলটি কিছুক্ষণ চেপে ধরে রাখুন। তাহলেই দেখতে পাবেন, ফোল্ডারটি ‘rename’ করার অপশন দেখাবে।

 

৫. এটিই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। খুব মন দিয়ে পড়বেন। WhatsApp Images নামের ফোল্ডারটির নাম বদলে করুন ‘WhatsApp Images’। লক্ষ্য করুন, ফোল্ডারের আসল নামের আগে একটি ‘ডট’ বসানো হয়েছে।

৬. ফোল্ডারটির নাম বদলে দিলেই সেটি ‘হিডেন ফোল্ডার’ হয়ে যাবে।

 

৭. এবার ফোনের ফাইল ম্যানেজার বা ফটো গ্যালারিতে গিয়ে ‘show hidden files’ অপশনটি বন্ধ করুন। ব্যাস! এবার আর কেউ আপনার ফোনে হোয়াটসঅ্যাপে আসা কোনও ছবি দেখতে পাবে না। আপনি যখন চাইবেন, ‘শো হিডন ফাইলস’ অপশনটি ‘অন’ করে নিলেই দেখতে পাবেন কী কী ছবি আপনার মেসেজ এসেছে।

৮. একইভাবে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ ভিডিও, অডিও ফাইলও আপনি লুকিয়ে রাখতে পারেন।

তাহলে এবার আপনার ও আপনার বন্ধু বা বান্ধবীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি লুকিয়ে রাখতে কোনও অসুবিধা হবে না। বন্ধুরাও যদি কেউ আপনাকে আপত্তিজনক কোনও ছবি/ভিডিও পাঠান, সেটাও বাড়ির বড়দের কাছ থেকে লুকিয়ে রাখতে পারবেন সহজেই। আর এই সহজ পদ্ধতিটি আপনার বন্ধুদের জানাতে প্রতিবেদনটি শেয়ার করতে ভুলবেন না যেন।

your add hare

Comments are closed.

     আরো খবর

Our Like Page