মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিক রিমান্ডে

গোপনীয়তা ভঙ্গের অভিযোগে মিয়ানমারে আটক রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে ১৫ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

বুধবার দেশটির আদালাতে ওই সাংবাদকিদের হাজির করে রিমান্ড আবেদন করলে আদালত তা মঞ্জুর করেন। দুই সাংবাদিককে আদালতে নেওয়া হলে সেখানে তাদের পরিবারের সদস্যদের জড়িয়ে ধরে কান্না করেন। এর আগে তাদের সাথে পরিবারের সদস্যদের দেখা করতে দেওয়া হয়নি।

এসময় আটক সাংবাদিকদের একজন বলেন, অন্য সাংবাদিকদের সাবধান হতে বলুন। এটা খুবই ভয়ঙ্কর, যা আমরা কোনো দিন ভুলব না।

গত ১৪ ডিসেম্বর পুলিশের আমন্ত্রণে ইয়াঙ্গুনে ৮-ব্যাটালিয়নের সদর দফতরে নৈশভোজে অংশ নিতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়ার পরদিন দেশটির পক্ষ থেকে তাদের আটকের খবর নিশ্চিত করা হয়। ওয়া লো (৩১) কিঁয়া সোয়ে ও (২৭) নামের ওই দুই সাংবাদিকই মিয়ানমারের নাগরিক। তাদের সঙ্গে আটক করা হয় দুই পুলিশ সদস্যকেও। তবে ওই পুলিশ সদস্যদের আদালতে হাজির করা হয়নি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের পক্ষ থেকে বলা হয়, রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের উপর সেনাবাহিনীর নির্যাতন নিয়ে সংবাদ সংগ্রহের তারা কিছু দলিল জোগাড় করেছিলেন। সেজন্য তাদের অফিসিয়াল সিক্রেটস আইনে গ্রেফতার করা হয়। তবে সংবাদ সংগ্রহের ক্ষেত্রে তারা কোনো ভুল করেননি।

ব্রিটিশ উপনিবেশিক আমলে তৈরি রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা আইন ১৯২৩- এই আইনে সর্বোচ্চ ১৪ বছর পর্যন্ত কারদণ্ডের বিধান রয়েছে।

এর আগে গত ২৯ অক্টোবর মিয়ানমারের পার্লামেন্ট ভবনের ওপর ড্রোন উড়িয়ে ছবি তোলায় আটক করা হয় তুরস্কের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম টিআরটির দুই সাংবাদিকসহ চারজনকে। আটক দুই বিদেশি নাগরিক ছিলেন সিঙ্গাপুরের নাগরিক ল হোন মেং ও মালয়েশীয় নাগরিক মোক চোয়। দশ দিনের পুলিশি হেফাজতের পর ১০ নভেম্বর তাদের আদালতে তোলা হলে তাদের দুই মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

your add hare

Comments are closed.

     আরো খবর

Our Like Page