যেভাবে দিনটির শুরু ভালো হবে

প্রিয়জনকে প্রেরণা দিন
প্রতিদিন সকালে অফিসে কিংবা কাজে যাওয়ার সময় প্রিয়জনকে বলুন ‘তোমার দিনটা শুভ হোক’। এতে করে তিনি দিনটা সুন্দর করে সাজানোর প্রেরণা পাবেন।

ব্যায়ামে দিন শুরু করুন
কেউ যদি ব্যায়ামে দিন শুরু করে, তবে সারাটা দিন তারা শরীর চনমনে থাকবে। মাত্র ১০ মিনিটের ব্যায়ামে ‘গামা’ নামের এক বিশেষ নিউরোট্রান্সমিটার নির্গত হয় মস্তিষ্কে, যা নিজের ওপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠায় সহায়তা করে। এতে প্রাণশক্তি বাড়ে ভরপুর- এমনটাই জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব ব্রিস্টলের গবেষকরা।

সকালে স্বাস্থ্যকর নাশতা
নিয়মিতভাবে সকালে নাশতা করলে স্থূলতার ঝুঁকি কম থাকে। রক্তে গ্লুকোজের মাত্রায় ভারসাম্যপূর্ণ অবস্থা বিরাজ করে।প্রোটিনে ভরপুর সকালের নাশতা দিনের বাকি সময়কে স্বাস্থ্যকর রাখার সামর্থ্য রাখে। খালি পেটে এক গ্লাস লেবুর পানি খেয়ে নিন। এর ১৫-৩০ মিনিট পর ব্যায়াম শুরু করুন। এর পটাসিয়াম, ভিটামিন ‘সি’ আর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট প্রাণোচ্ছলতার চূড়ায় রাখবে আপনাকে।

ঘুম থেকে উঠেই ফোন নয়
ঘুম থেকে উঠেই ই-মেইল, মেসেজ বা ফেসবুকে নজর রাখা ভালো কিছু নয়। জরুরি বিষয় হতেই পারে। কিন্তু কাজটি নাশতার পর করলে ক্ষতি কী? প্রযুক্তিযন্ত্রের পর্দা আপনার মস্তিষ্ককে উত্তেজিত করে। সকালের স্নিগ্ধতা আর শান্ত ভাব এক নিমিষেই চলে যায়। তাছাড়া সকালে বের হওয়ার সময় পরিবারের ঝুট-ঝামেলা বা অফিসের চাপ নিয়ে কথা বলবেন না। এতে কর্ম-উদ্দীপনাকে ব্যাহত হতে পারে।

your add hare

Comments are closed.

     আরো খবর

Our Like Page