ত্বক ও চুলের যত্নে কফির উপকারিতা জেনে নিন

নিউজ ডেস্ক- সকালে ঘুম থেকে উঠে এক মগ গরম গরম কফি যেন সারা দিন কাজ করার এনার্জি এনে দেয়। তবে শুধু পানীয় হিসেবেই নয়, ত্বক ও চুলের যত্নেও ব্যবহার করা যায় এটি। কফি দিয়ে ত্বকের জন্য চমৎকার স্ক্রাব ও মাস্ক তৈরি করা যায়। পাশাপাশি চুল উজ্জ্বল করতে এবং চুলের রং ভালো রাখতেও সাহায্য করে কফি। অর্থাৎ আপনার রূপচর্চার একটা বড় উপকরণ হতে পারে এটি। আসুন জেনে নেই ত্বকের যত্নে কফির নানা ব্যবহার সম্পর্কে।

১. ত্বক সজীব রাখতে কফি দিয়ে তৈরি স্ক্রাব বেশ কাজে দেয়। কফি গুড়া, চিনি গুড়ার সাথে সামান্য অলিভওয়েল মিশিয়ে স্কার্ব তৈরি করুন। তারপর কিছুক্ষণ তা ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। এটি আপনার ত্বকের মরা চামড়াকে দূর করতে সাহায্য করবে।

২. কফির মাস্ক তৈরি করতে ২ টেবিল-চামচ কফির ‍গুঁড়া, ২ টেবিল চামচ কোকো পাউডার, ৩ টেবিল-চামচ টক দই এবং ১ টেবিল-চামচ মধু একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর মিশ্রণটি পুরো ত্বকে লাগিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

৩. অনেক সময় বেশি কাজের চাপে চোখ ফুলে যায়। চোখের ফোলা ভাব এবং ডার্ক সার্কেল দূর করতে সাহায্য করে কফি। কফি খাওয়ার সময় অল্প কিছু ভেজা দানা রেখে দিন। এরপর চোখের চারপাশে কিছুক্ষণ লাগিয়ে রাখুন। ঠান্ডা পানি দিয়ে চোখ ধুয়ে ফেলুন।

৪. বডি স্কিন স্ক্রাব তৈরির জন্য প্রথমে আধা কাপ কফিগুঁড়া ও এককাপের এক চতুর্থাংশ বাদামি চিনি মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর মিশ্রণটির সঙ্গে অলিভ অয়েল অয়েল বা নারিকেল তেল এবং ১ টেবিল-চামচ দারুচিনিগুঁড়া মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিতে হবে। কফিতে থাকা ক্যাফেইন শরীর থেকে বাড়তি তেল ও মরা চামড়া দূর করতে সাহায্য করে।

৫. মাথার ত্বকের চর্চায়ও আপনি ব্যবহার করতে পারেন কফি। ভেজা মাথার ত্বকে সামান্য পরিমাণ কফি গুড়া লাগিয়ে রাখুন। কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন মরা চামড়া পরিষ্কার হয়ে গেছে।

৬. চুলে উজ্জ্বল বাদামি আভা আনতে কফিতে চুল ভিজিয়ে রাখতে পারেন। এক্ষেত্রে ১৫ মিনিটের জন্য কফিতে চুল ভিজে রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে।

৭. কোনো অনুষ্ঠানে যাওয়ার সময় সুন্দর ঝলমলে চুল পেতে চাইলে আপনি কন্ডিশনারের সাথে সামান্য কফি গুঁড়া মিশিয়ে পাঁচ মিনিটের মতো চুলে লেগে রাখুন। দেখবেন মুহূর্তেই ঝরঝরে সুন্দর চুল।

your add hare

Comments are closed.

     আরো খবর

Our Like Page