বাপ্পী হঠাৎ কেন বিয়ের ঘোষণা দিলেন?

যে কারণ দেখিয়ে অপু বিশ্বাসকে ডিভোর্স নোটিশ শাকিব খান পাঠিয়েছেন তার মধ্যে রয়েছে ‘বয়ফ্রেন্ড’ প্রসঙ্গ। এরপরই মিডিয়ায় গুঞ্জন রটে কে এই ‘বয়ফ্রেন্ড’! আরও গুঞ্জন রটে ঢালিউডের তরুণ নায়ক বাপ্পী চৌধুরীর নাকি সেই ‘বয়ফ্রেন্ড’।

তবে ডিভোর্স নোটিশ দেয়ার আগেও অপু-বাপ্পির প্রেম নিয়ে খবর রটেছে। অপু এ বছর সংসার-সন্তানের কথা জনসম্মুখে প্রকাশ করে দেয়ায় একবার লাইভে শাকিব বলেছিলেন, একজন উঠতি নায়কের সঙ্গে অশ্লীল অবস্থায় অপুকে হাতেনাতে ধরেছিলেন তিনি। অনেকেই বলছেন, শাকিব ইঙ্গিত করেছেন চিত্রনায়ক বাপ্পি চৌধুরীর দিকে। তার সঙ্গে অপু ‘কাঙাল’ ও ‘কানাগলি’ নামের দুইটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধও হয়েছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ছবিটি থেকে বের হয়ে আসেন অপু। এর আগে দীর্ঘ অবসর ভেঙে বাপ্পীর সঙ্গে ঝমকালো সাজে দূর্গা পূজার ফটোশ্যুটে অংশ নিয়েছিলেন অপু বিশ্বাস।

 

বাপ্পী ইস্যুতে অপু বিশ্বাস বলেন, আমি খুবই অবাক হয়েছি বাপ্পী চৌধুরীর সঙ্গে আমার সম্পর্ক রয়েছে এমন গুজবে। বাপ্পী আমার ছোট ভাইয়ের মতো। সে আমাকে সম্মান করে।

শাকিবকেও অনেক শ্রদ্ধা করে। সে আমার সিনেমার নায়ক হয়ে গেল বলেই যে আমার ঘরেরও নায়ক হয়ে যাবে এটা ভাবার তো কোনো অবকাশ নেই। আমি যেমন অনেক নায়কের সঙ্গে কাজ করব তেমনি শাকিবও অনেক নায়িকাদের সঙ্গে কাজ করছে। কেমন করে বাপ্পীকে নিয়ে আমার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের গুজব ছড়ানো হয় আমি বুঝি না। আমি মনে করি যারা বাপ্পীকে আমার প্রেমিক বানিয়েছে তারা মানসিকভাবে অসুস্থ। তাদের মানসিক চিকিৎসা দরকার। এ কথা বলে আমাকে ছোট করা হয়েছে। বাপ্পীকেও অপমান করা হয়েছে। কষ্টের ব্যাপার হলো শাকিব এসব গুজবের প্রতিবাদ না করে সব বিশ্বাস করেছে।

অপু আরও বলেন, বয়ফ্রেন্ডের যে কথাটা উঠেছে তাতে আমি রীতিমতো হেসেছি। প্রমাণ ছাড়া অহেতুক অভিযোগ করলে হাসি ব্যতিত আর কিছু করার থাকে না। সত্য একদিন প্রকাশ পাবে। আর যেদিন সত্য উন্মোচিত হবে, সেদিন অভিযোগকারীরা লজ্জা পাবে। এখানে অভিযোগকারী আমার নিজের স্বামী।

বাপ্পীও এসব একেবারেই অস্বীকার করেছেন। গণমাধ্যমে তিনি বলেছেন, দিদি ও আমাকে জড়িয়ে একটা মহল উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এইসব কথা রটাচ্ছেন। যেটা একেবারে ভিত্তিহীন। তাকে আমি সবসময় ‘অপু দি’ বলে ডাকি। তিনি আমার বোনের মতো। তিনিও আমাকে ছোট ভাইয়ের মতো দেখেন। তার সঙ্গে তো আমার কোনো কাজ এখনো হয়নি। আমি তাকে সম্মান করি। তার সঙ্গে প্রেম কীভাবে সম্ভব? এসব শুনে আমি খুব বিব্রত। প্রথম কথা তিনি আমার সিনিয়র অভিনেতার স্ত্রী, দ্বিতীয়ত অপু বিশ্বাস নিজেও আমার সিনিয়র। শাকিব-অপু জুটির ভক্তদের মতো আমিও চাই তাদের যেন ডিভোর্স না হয়।

এদিকে অনেকটা হঠাৎ করেই বিয়ের ঘোষণা দিয়েছেন বাপ্পী। চলতি মাসেই নিজের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে বাপ্পীর দেয়া বিয়ে সংক্রান্ত ঘোষণায় শুরু হয়েছে নতুন জল্পনা। অনেকেই বলছেন, শাকিব-অপুর ডিভোর্স ইস্যু থেকে নিজেকে আড়াল করতেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাপ্পী। বিয়ে বিষয়ে তিনি বলেন, গত বছর থেকেই মা-বাবা আমার জন্য পাত্রী দেখা শুরু করেছেন। জন্মদিনের সকালে মা-বাবাকে জানিয়ে দিয়েছি, আমি বিয়ের জন্য এখন প্রস্তুত। তোমরা যাকে পছন্দ করবে তাকেই বিয়ে করব। তাই মা-বাবার পছন্দেই আমি বিয়ে করব বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

Comments are closed.

     আরো খবর

Our Like Page