আপনি জানেন কি সুখ বাড়াতে কীভাবে কাজ করে ভায়াগ্রা?

সমাজে যৌনতা এবং তার সূত্র ধরে ভায়াগ্রা নিয়ে বহু ভুল ধারণা প্রচলিত রয়েছে। অনেকেই সংস্কার ও অন্ধ বিশ্বাসের গেরো টপকে এ সম্পর্কে খোলাখুলি আলোচনা করতে দ্বিধা বোধ করেন। ধোঁয়াশা কাটাতে ভায়াগ্রা সংক্রান্ত কিছু তথ্য বিশ্লেষণ করা হল।।

প্রথমেই জানিয়ে রাখা ভাল, ভায়াগ্রা একটি ট্রেড নেম বা নির্দিষ্ট একটি ওষুধের রাসায়নিক নামকরণ। এর মূল উপাদান সিলডেনাফিল সাইট্রেট। প্রাথমিক পর্যায়ে এটি হৃদযন্ত্রের সমস্যায় ব্যবহার করা হলেও তাতে আশাপ্রদ ফল পাওয়া যায়নি। কিন্তু গবেষণা চলাকালীন দেখা যায়, পুরুষ রোগীদের লিঙ্গ উত্থানের ক্ষেত্রে তা কার্যকর হচ্ছে। বিষয়টি লক্ষ্য করে ভায়াগ্রা নিয়ে নতুন ভাবনা-চিন্তা শুরু করেন গবেষকরা।

 

মূলত অনিচ্ছুক মসৃণ কোষের শিথিলতার সময়সীমা বৃদ্ধি করে এবং পুরুষাঙ্গে রক্ত চলাচলের হার বাড়ানোই ভায়াগ্রার কাজ। তবে শুধুমাত্র পুরুষাঙ্গই নয়, গোটা শ্রোণী এলাকাতেই রক্ত সরবরাহ বাড়ায় ভায়াগ্রা। পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, শতকরা ৮৮ ভাগ ক্ষেত্রে যৌনতায় অক্ষম পুরুষ ভায়াগ্রা ব্যবহার করে সুফল পেয়েছেন। শুধু লিঙ্গ উত্থানের সমস্যাই নয়, এই অবস্থা ধরে রাখতেও ভায়াগ্রার ভূমিকা প্রশ্নাতীত। এর প্রয়োগে যৌন সুখের সময়সীমা বৃদ্ধি হয় বলেও প্রমাণিত।

তবে, ভায়াগ্রা ব্যবহারের আগে কয়েকটি ব্যাপারে নিশ্চিত হয়ে নেওয়া জরুরি। চিকিৎসকদের মতে, হৃদযন্ত্রের সমস্যা থাকলে এই ওষুধ প্রয়োগ করা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। এই কারণে ভায়াগ্রা ব্যবহারের আগে দেখে নিতে হবে রোগীর কোনও হৃদযন্ত্র জনিত সমস্যা রয়েছে কিনা। সাধারণত, হার্ট ফেইলিয়র, স্ট্রোক বা মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ, হার্টের মায়োকার্ডিয়ামে সংক্রমণ, অত্যধিক বা অত্যন্ত কম রক্তচাপের সমস্যা থাকলে চিকিত্‍সক এই ওষুধ ব্যবহার করতে নিষেধ করেন। এ ছাড়া জিভের নীচে রাখার গ্লিসারিন টাইনাইট্রেটস ট্যাবলেট, স্প্রে, ডাইনাইট্রেটস ইত্যাদি ওষুধের সঙ্গেও ভায়াগ্রা ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন চিকিৎসকরা। বাজারে প্রচলিত অর্গ্যানিক নাইট্রেটস যেমন নাইট্রোগ্লিসারিন, আইসোসরবাইটডাইনাইট্রেটস, নাইটোডুর, নাইটোপেস্ট এবং আইসোবিউটাল নাইট্রেট সমৃদ্ধ ওষুধ নিয়মিত ব্যবহার করলেও ভায়াগ্রা সেবন করা মানা।

 

ভায়াগ্রার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে মতান্তর রয়েছে। তবে প্রচলিত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার মধ্যে মাথাব্যথা, মুখমণ্ডল রক্তবর্ণ ধারণ করা এবং দৃষ্টি জনিত সমস্যা দেখা দিতে পারে বলে জানা গিয়েছে। বেশি মাত্রায় ভায়াগ্রা ব্যবহারে চোখের নানা সমস্যা দেখা দেওয়া বিরল নয়। সাধারণত লিঙ্গের উত্থান জনিত সমস্যা দূর করতে ৫০ মিলিগ্রাম ভায়াগ্রাই যথেষ্ট। ক্ষেত্র বিশেষে তা ১০০ মিলিগ্রাম পর্যন্ত প্রয়োগ করা চলে। তবে, ভায়াগ্রা বা সিলডেনাফিল সাইট্রেট ২৪ ঘণ্টায় একবারের বেশি ব্যবহার করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। যৌনমিলনের এক ঘণ্টা আগে ভায়াগ্রা ব্যবহার করাই উচিত৷

your add hare

Comments are closed.

     আরো খবর

Our Like Page