বিশ্বের কোন দেশে কীভাবে খাওয়া হয় ডিম

বাংলাদেশে ডিম দিয়ে নানা ধরনের পিঠা তৈরি করা হয়। ডিম ভাজি, সিদ্ধ এমনকি ডিম দিয়ে নানা ধরনের তরকারিও রান্না করা হয়। দেশের নানা অঞ্চলে ডিম দিয়ে ভর্তাও তৈরি হয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আরও বিচিত্রভাবে ডিম খাওয়া হয়। যেমন ব্রিটেনে ডিম দিয়ে তৈরি ‘স্কচ এগ’ এর চল খুব বেশি। সিদ্ধ ডিম সসেজে মুড়ে, ব্রেডক্রাম্ব দিয়ে হালকা ভাজা বা বেক করা। ধোঁয়া ওঠা চা বা কফির সঙ্গে মূলত স্ন্যাকস হিসেবেই এটা খাওয়া হয়।

 

যুক্তরাষ্ট্রে ডায়েট চার্টে জায়গা করে নিয়েছে ডিমের সালাদ। একেবারেই মশলা ছাড়া সিদ্ধ ডিম, মেয়োনিজ এবং সবজি সহযোগে এ সালাদ সকালের নাস্তায় খুব জনপ্রিয়।

শ্রীলঙ্কার খুবই জনপ্রিয় স্ট্রিট ফুড ‘এগ হপার’। চালের গুঁড়ো এবং নারকেল দুধ দিয়ে রাঁন্না করা হয় এটি। ইতালিতে ডেভিলড এগ (ডিম দিয়ে তৈরি খাবার) একটু অন্য ভাবেই রাঁধা হয়। সিদ্ধ ডিমের উপর স্টাফড সবজি এবং মেয়োনিজ নিয়ে স্ন্যাকস হিসেবে খাওয়া হয়।

 

ইসরায়েলের মুখরোচক সকালের নাস্তায় থাকে শাকশৌকা। ডিমের পোচের উপর রেড সস ছড়িয়ে, টমেটো, মরিচ, পেঁয়াজ এবং গোলমরিচ দিয়ে রাঁধা হয় এই পদ। ফ্রান্সে এগ এন কোকোত্তের খুব চল রয়েছে। একেবারেই মশলা ছাড়া স্টিমড ডিমই হল এগ এন কোকোত্তে।চীন ডিম দিয়ে তৈরি খাবার ‘সেঞ্চুরি এগ’ বেশ জনপ্রিয়। মুরগি, কোয়েল বা হাঁসের ডিম দিয়ে রাঁন্না করা হয় এই পদ।

 

তিউনিশিয়ায় ব্রিক (ডিম দিয়ে তৈরি খাবার) খুবই জনপ্রিয়। স্টাফড ডিম, পার্সলে এবং পেঁয়াজ দিয়ে রেঁধে উপরে চিজ ছড়িয়ে খাওয়া হয় এই ব্রিক। ভারতে ঘর বা নামী রেস্তোরাঁয় মুখরোচক খাবারের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে ডিম কারি (ডিম দিয়ে তৈরি তরকারি)। সূত্র : আনন্দবাজার

your add hare

Comments are closed.

     আরো খবর

Our Like Page