খালেদা জিয়াকে নিয়ে যা জানালেন চিকিৎসকরা

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কবে বাসায় নেওয়া হবে সে বিষয়ে আজ সিদ্ধান্ত জানাবেন চিকিৎসকরা। এর আগে গত (৮ জানুয়ারি) তাকে কেবিনে নেয়া হলে বড় ধলনের কোনো রক্তক্ষরণ হয়নি। জানা গেছে, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় তাঁকে হাসপাতালে রাখতে চাচ্ছেন না চিকিৎসক ও পরিবারের সদস্যরা।

শনিবার ( ২২ জানুয়ারি) পুনরায় তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। এরপর চিকিৎসকরা তাঁকে বাসায় নেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানাবেন। বিএনপির একাধিক নেতা ও তাঁর চিকিৎসকদের সংগে কথা বলে এই তথ্য জানা গেছে।

খালেদা জিয়া’র ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) আগের মতোই আছেন। এখন কিছুটা স্থিতিশীল বলা যায়। ৮ জানুয়ারি কেবিনে স্থানান্তরের পর বড় ধরনের রক্তক্ষরণ হয়নি। প্রযুক্তিগত সীমাবদ্ধতার কারণে বাংলাদেশে তাঁর সুচিকিৎসা হচ্ছে না। তাই যেকোনো সময় আবার তাঁর রক্তক্ষরণ হতে পারে।

জানা যায়, গত ১৫ জানুয়ারি খালেদা জিয়া’র গৃহকর্মী ফাতেমা করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৬ জানুয়ারি এভারকেয়ার হাসপাতালের করোনা ব্লকের ৬০২৪ কেবিনে ভর্তি। এখন তিনি সুস্থ হয়ে উঠলেই খালেদা জিয়াকে গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় নেওয়া হবে।

এদিকে ফাতেমার করোনা উপসর্গ এখন তেমনটা নেই। তাই দুই-একদিনের মধ্যেই তার করোনা’র নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়া যেতে পারে। তখন খালেদাকে বাসায় নেওয়া হতে পারে।

Back to top button