স্বাস্থ্যবিধি নয়, আন্দোলন ঠেকাতেই বিধিনিষেধ: গয়েশ্বর চন্দ্র

জনস্বাস্থ্য নয়, রাজনৈতিক আন্দোলন মোকাবেলা করতেই বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে জিয়া নাগরিক ফোরাম আয়োজিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তাকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসা এবং নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে এক আলোচনা সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

বাংলাদেশের জনগণের ওপর মার্কিন একটি সংস্থা জরিপ করেছে জানিয়ে গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, জরিপের ফলাফল, ৮৮ জন মানুষ বিশ্বাস করে, বিধিনিষেধ রাজনৈতিক আন্দোলন মোকাবিলা করতে আরোপ করা হয়েছে। জনস্বাস্থ্যকে বিবেচনা করে নয়। বিষয়টি জনমনেও প্রতিষ্ঠিত। নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বিএনপির এ নেতা বলেন, ঘরে বসে আলোচনা করে আমাদের সমস্যার ফয়সালা হবে না।

পরিবেশ পরিস্থিতিতে রাজপথের পাশাপাশি ঘরকেও অবহেলা করার সুযোগ নেই। কিন্তু বর্তমান প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা করোনাকে সরকার আর্শীবাদ হিসেবে আজকে রাজনীতিতে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করার সুযোগ নেয়, তখন আমাদের তো কথা বলতে হবে। সেই বলার জায়গাটা হয়তো বা কম।

তিনি আরও বলেন, আমাদের নেত্রীর মুক্তি ও চিকিৎসার দাবিতে সারাদেশে যে গণজোয়ার, সেই জোয়ারে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ হয়েছে। তাই সরকার ভীত-সন্ত্রস্ত। বিএনপির শক্তি পরিমাপ করতে পেরেছে। তার চেয়ে বেশি পেরেছে, সরকার যে জনরোষের মুখোমুখি আছে।

সেই কারণে আত্মরক্ষায় জন্য করোনা নামক অস্ত্রটি কারা ব্যবহার করছে। আয়োজক সংগঠনের সভাপতি লায়ন মিয়া মোহা. আনোয়ারের সভাপতিত্বে সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

সুত্রঃ বাংলাদেশ জার্নাল

Back to top button