নিজের বিয়ে বাতিল করলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়ায় এবং দেশটির সরকার কঠোর বিধিনিষেধ জারি রাখায় বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন না নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন ও তার দীর্ঘদিনের সঙ্গী ক্লার্ক গেফোর্ড। জানা গেছে, স্থানীয় সময় রোববার (২৩ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্নের বিয়ে বাতিলের ঘোষণা দেন। প্রধানমন্ত্রী নিজেই বিয়ে বাতিলের বিষয়টি ঘোষণা দিয়ে করোনার বিধিনিষেধের বিশদ বিবরণ তুলে ধরেন।

এসময় তিনি বলেন, আমার বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা এখন এগোচ্ছে না। সম্প্রতি একই পরিবারের নয়জনের ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে যারা একটি বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য শহরে ঘোরাঘুরি করেন এয়ারক্রাফটে। ডেল্টার চেয়ে ওমিক্রন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় ‘রেড সেটিং’ নামে নতুন নিয়ম চালুর ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার। জনসমাগম এড়িয়ে চলা, মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

আগামীকাল সোমবার থেকে কার্যকর হবে এ সিদ্ধান্ত। তবে এটি লকডাউন নয়। ২০১৭ সালে নিউজিল্যান্ডের কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বগ্রহণ করে ইতিহাসের পাতায় নাম লেখান জেসিন্ডা আরডার্ন। অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় দায়িত্ব পালন করা হাতেগোনা কয়েকজন নির্বাচিত সরকারপ্রধানের মধ্যেও তিনি অন্যতম। যদিও জেসিন্ডা ও গেফোর্ড কখনোই তাদের বিয়ের দিন তারিখ ঘোষণা করেননি।

তবে এটি আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে তাদের বিয়ের দিন ধার্য করা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছিল। নিউজিল্যান্ডে মহামারি শুরুর পর এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ হাজার ১০৪ জন। দেশটিতে করোনায় মারা গেছেন ৫২ জন। কঠোর সীমান্ত নিষেধাজ্ঞা এবং লকডাউন জারি রেখে করোনা নিয়ন্ত্রণে সাফল্য দেখিয়েছেন জেসিন্ডা আরডার্ন। এবার ওমিক্রন ঠেকাতে আরও কঠোর হচ্ছেন তিনি।

খবর- সূত্র: এএফপি, আল-জাজিরা।

Back to top button