কোহলিকে নিয়ে আনুষ্কার পোস্ট

টি-টোয়েন্টি-ওয়ানডে ক্রিকেটের পর টেস্ট ক্রিকেটের অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন ভারতের তারকা ক্রিকেটার বিরাট কোহলি। কোহলি টেস্ট ছাড়ার ঘোষণার পরপরই টুইট করে নিজেদের অভিব্যক্তি জানিয়েছেন সাবেক ও বর্তমান ক্রিকেটাররা। তবে এর একদিন পর বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও কোহলির স্ত্রী আনুষ্কা শর্মা সোশ্যাল মিডিয়ায় তার স্বামীকে প্রশংসায় ভাসালেন।

বলিউড অভিনেত্রী তাদের হাসিমাখা সেলফিসহ দুটি ছবি পোস্ট করেছেন। সেখানেই আবেগঘন এক বার্তা দিয়েছেন আনুষ্কা। কোহলির টেস্ট অধিনায়কত্ব পাওয়ার দিনের কথা মনে করিয়ে দেন আনুষ্কা, ‘২০১৪ সালের দিনটার কথা মনে আছে আমার, যখন তুমি আমাকে বলেছিলে এমএস টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ায় তোমাকে অধিনায়ক করা হয়েছে। আমার মনে আছে, এমএস, তুমি ও আমি মিলে ওই দিন পরে কথা বলছিলাম।

তিনি মজা করে বলেছিলেন, এবার দেখো তোমার দাড়ি কত তাড়াতাড়ি পেকে যায়। ওটা নিয়ে আমরা সেদিন খুব হেসেছিলাম। কোহলিকে নিয়ে গর্ব করে তিনি লিখেছেন, ‘ওই দিন থেকে, আমি শুধু তোমার দাড়ি পেকে যাওয়ার চেয়েও আরো বেশি কিছু দেখেছি। আমি দেখেছি উন্নতি। অনেক উন্নতি। তোমার চারপাশে ও তোমার মাঝে। এবং হ্যাঁ, আমি খুব গর্বিত জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে তোমার উন্নতি এবং তোমার নেতৃত্বে দল যা অর্জন করেছে তা নিয়ে।

২০১৪ সালে আমরা অনেক তরুণ ও নিষ্কলুষ ছিলাম। ভাবতাম শুধু ভালো উদ্দেশ্য, ইতিবাচক মানসিকতা ও অভিপ্রায় তোমাকে জীবনে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। সেটাই হয়েছে, কিন্তু চ্যালেঞ্জ ছাড়া নয়। অনেকগুলো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হয়েছে তোমাকে, যার মধ্যে সবটাই মাঠে নয়। কোহলির দৃঢ় মনমানসিকতার প্রশংসা করে আনুষ্কা আরো লিখেছেন, ‘কিন্তু তারপর, এটাই তো জীবন তাই না? আমার ভালোবাসা, আপনার ভালো উদ্দেশ্যের পথে কিছু ঢুকতে না দেওয়ার জন্য আমি খুব গর্বিত।

তুমি নেতৃত্ব দিয়ে উদাহরণ তৈরি করেছিলে এবং তোমার শক্তির সবটুকু নিংড়ে দিয়ে দলকে জিতিয়েছ। মাঝেমধ্যে হারের পর আমি তোমার পাশে বসে থাকতাম, দেখতাম তোমার দুচোখে জল, তুমি অবাক হয়ে তাকিয়ে থাকতে যে আরো বেশি কিছু কি করার ছিল তোমার! তিনি আরো বলেছেন, ‘এটাই তুমি এবং প্রত্যেকের কাছ থেকে এমনটাই প্রত্যাশা করতে। তুমি ছিলে প্রথার বাইরের একজন এবং অকপট।

ভনিতা ছিল তোমার শত্রু এবং এটাই তোমাকে আমার ও তোমার শুভাকাঙ্ক্ষীদের চোখে সেরা বানিয়েছে। কারণ এই সবকিছুর ভেতরে তোমার শুদ্ধ ও নির্ভেজাল উদ্দেশ্য ছিল। এবং প্রত্যেকে এটা সত্যিই বুঝতে পারে না। কোহলির মনের ভেতরটা কেমন তার বর্ণনাও দিলেন আনুষ্কা ‘যেমনটা আমি বলেছি, সত্যিকারের আশীর্বাদপুষ্ট তারা যারা তোমাকে অন্তর্দৃষ্টি দিয়ে বুঝতে চেষ্টা করেছে।

তুমি নিখুঁত নও এবং দোষত্রুটি আছে, কিন্তু সেগুলো কি কখনো লুকিয়ে রাখার চেষ্টা করেছ? তুমি যা করেছ, সবসময় সঠিক আর কঠিন কাজ করার জন্য দাঁড়িয়ে গেছ। তুমি কখনো লোভের বশবর্তী হয়ে কিছু আকড়ে ধরোনি, এমনকি এই পদও নয় এবং আমি জানি সেটা।

কারণ যখন কেউ কোনোকিছু শক্ত করে ধরে রাখে তখন তারা নিজেদের গুটিয়ে ফেলে এবং তুমি, আমার ভালোবাসা, তুমি ছিলে অসীম। বাবা হিসেবে তুমি কী, এই সাত বছরের শিক্ষা আমাদের মেয়ে দেখবে। তুমি দারুণ করেছ।’

Back to top button