এক লাফে করোনা আক্রান্ত ৬ হাজারে, মৃত্যুও বাড়ল

দেশে লাফিয়ে বাড়ল করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। শেষ ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করেনাাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৬৭৬ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় এই মহামারি ভাইরাসে মৃত্যুবরণ করেছেন ১০ জন। সোমবার (১৭ জানুয়ারি) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে গত রোববার (১৬ জানুয়ারি) দেশে করোনায় ৫ হাজার ২২২ জন শনাক্তের খবর পাওয়া যায়। এসময় মৃত্যুবরণ করেন ৮ জন।

গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনায় শনাক্তের হার ২০.৮৮ শতাংশ। এছাড়া দেশে মোট করোনায় শনাক্তের সংখ্যা ১৬ লাখ ২৪ হাজার ৩৮৭ জন। মোট মৃত্যুর সংখ্যা ২৮ হাজার ১৫৪।এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সোমবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩ হাজার ৯৯০ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে দেড় হাজারের বেশি। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৫৫ লাখ ৫৭ হাজার ৫৯৪ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৮৭ হাজার ৯৭৩ জন এবং মারা গেছেন ৩৪৬ জন। রাশিয়ায় মৃত্যু ৬৮৬ জন, আক্রান্ত ২৯ হাজার ২৩০ জন। যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত ৭০ হাজার ৯২৪ জন, মৃত্যু ৮৮ জন। ইতালিতে আক্রান্ত ১ লাখ ৪৯ হাজার ৫১২ জন এবং মৃত্যু ২৪৮ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত ২ লাখ ৭৮ হাজার ১২৯ জন এবং মৃত্যু ৯৮ জন। কলম্বিয়ায় আক্রান্ত ৩২ হাজার ৩১৭ জন এবং মৃত্যু ১৩৬ জন।

জার্মানিতে আক্রান্ত ৪৫ হাজার ২৮৭ জন এবং মৃত্যু ২৬ জন। ইউক্রেনে আক্রান্ত ৬ হাজার ৩৭৯ জন এবং মৃত্যু ৮৮ জন। ব্রাজিলে মৃত্যু ৯২ জন এবং আক্রান্ত ৩১ হাজার ২২৯ জন। এছাড়া তুরস্কে ১৩৬ জন, পোল্যান্ডে ৩৫ জন, দক্ষিণ আফ্রিকায় ৮৬ জন, ফিলিপাইনে ৫০ জন, কানাডায় ৬৭ জন, মেক্সিকোতে ২২৭ জন এবং ভিয়েতনামে ১২৯ জন মারা গেছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে সংস্থাটি।

Back to top button