আমেরিকা-ইউরোপকে উপেক্ষা করেই রাশিয়ার জোটে আমিরাত

ইউক্রেনে রুশ সামরিক অভিযানকে কেন্দ্র করে রাশিয়ার ওপর আমেরিকা এবং ইউরোপীয় মিত্র দেশগুলো বেশ কতগুলো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এতে আন্তর্জাতিক বাজারে সৃষ্ট তেলের সঙ্কট নিরসনের জন্য পাশ্চাত্য যে আহ্বান জানিয়েছে তা উপেক্ষা করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

আমিরাতের জ্বালানি মন্ত্রী সোহায়েল আল-মাজুরি বলেছেন, রাশিয়া হচ্ছে আন্তর্জাতিক তেলের বাজারে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি দেশ। প্রতিদিন তারা এক কোটি ব্যারেল তেল রপ্তানি করে। ইউক্রেন সঙ্কটের এই সময়ে কোনো দেশের পক্ষে এত বিপুল পরিমাণ তেলের যোগান দেয়া সম্ভব নয়।

সোমবার আটলান্টিক পরিষদে দেয়া বক্তৃতায় এ সব কথা বলেছেন আমিরাতের জ্বালানি মন্ত্রী।
তিনি আরও বলেন, “ওপেকভুক্ত দেশগুলোর উচিত ঐক্যবদ্ধ থাকা এবং রাজনীতিকে এই সংস্থার মধ্যে টেনে না আনা। আমরা সবসময় বিশ্বাস করি-দেশ হিসেবে আমরা যা করি না কেন, যখন তেল উত্তোলনের প্রশ্ন আসবে তখন আমাদেরকে রাজনীতির বাইরে থাকতে হবে।”

সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং সৌদি আরব হচ্ছে আমেরিকা ও ইউরোপের ঘনিষ্ঠ দুই মিত্র দেশ। তা সত্ত্বেও ইউক্রেন রাশিয়ার সামরিক অভিযানের নিন্দা করেনি তারা এবং আমেরিকা ও ইউরোপের পক্ষ থেকে তেলের উৎপাদন বাড়ানোর জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছিল তাও রাখেনি। দেশ দু’টি বলেছে তারা ওপেকের ঐক্য ভঙ্গ করার ঝুঁকি নিতে পারবে না।

সূত্র: রয়টার্স।

Back to top button