চাচাকে তালাক দিয়ে বিয়ের দাবিতে ভাতিজার বাড়িতে চাচি

টাঙ্গাইলের সদর উপজেলার করটিয়া ইউনিয়েনের গোসাইবাড়ী কুমুল্লি গ্রামে বিয়ের দাবিতে ভাতিজার বাড়িতে উঠেছে চাচি। বুধবার (৩০ মার্চ) দুপুরে করটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) মো. নেছার উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।  এর আগে মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) সকালে এ ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনাটি দেখতে শত শত মানুষ ওই বাড়িতে ভিড় জমাচ্ছে।

জানা গেছে, গোসাইবাড়ী কুমুল্লি গ্রামের মো. বেলায়েত হোসেনের ছেলে মো. সোহাগ (১৬) প্রতিবেশী চাচির (২৬) সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। তাদের গত এক বছর ধরে চলছে সম্পর্ক। এদিকে ভালোবাসার টানে মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) সকালে বিয়ের দাবিতে সোহাগের বাড়িতে অবস্থান করেন চাচি। এতে বিপাকে পড়ে উভয়ের পরিবার।

এরপরে সন্ধ্যায় ভাতিজার (সোহাগ) বাড়ির উঠানে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. নেছার উদ্দিনের উপস্থিতিতে সালিসি-বৈঠক করেন মাতব্বর হেলাল মোল্লাহ, নজু মণ্ডলসহ শতাধিক জনতা। এ সময় বৈঠকে সকলের সামনে চাচি-ভাতিজা দুজনেই বিয়ের দাবি তোলেন। আইনি জটিলতা (মেয়ে বিবাহিতা-ছেলে নাবালক) থাকায় চাচি পূর্বের স্বামীকে তালাক দেয়।

এ বিষয়ে করটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) মো. নেছার উদ্দিন জানান, পূর্বের স্বামীকে তালাকের ব্যবস্থা করে প্রেমিক সোহাগের বাড়িতে ওই নারীকে রেখে দিয়েছি।আইনি জটিলতা থাকায় তাদের বিয়ে দেওয়া সম্ভব হয়নি।

Back to top button