যে কারণে রাজামৌলির উপর চটেছেন আলিয়া!

বক্স অফিসে টইটম্বুর তেলেগু ছবি ‘আরআরআর’এর ভাঁড়ার। প্রথম তিনদিনেই ৫০০ কোটি রুপির ব্যবসা করে নিয়েছে এস এস রাজামৌলির এই মহাকাব্যিক ছবি।

কিন্তু এই সাফল্যের মাঝেই দানা বেঁধেছে বিতর্ক। ইন্ডাস্ট্রির গুঞ্জন, পরিচালকের উপর চটেছেন আলিয়া ভাট। ছবিতে তার খুব কম সংখ্যক দৃশ্য রাখায় পর্দার ‘সীতা’ বেশ চটেছেন। শোনা যাচ্ছে, ইনস্টাগ্রামে রাজামৌলিকে ‘আনফলো’ করেছেন আলিয়া। প্রোফাইল থেকে মুছে দিয়েছেন আরআরআর সিনেমার প্রচারে তোলা ছবি।

‘বাহুবলী’ খ্যাত পরিচালক এস এস রাজামৌলির হাত ধরে দক্ষিণী ছবির দুনিয়ায় পা রেখেছেন মহেশ ভাট কন্যা। আর শুরুতেই সফল তিনি, এ কথা বলা যায় অচিরেই। বক্স অফিসে রেকর্ড ব্যবসা করছে এই ছবি। সাফল্যের মাঝেই দানা বেঁধেছে বিতর্ক। গাঙ্গুবাই কাথিয়াওয়াড়ি’র সুবাদে আলিয়া এখন ২০০ কোটির ক্লাবের সদস্য। শোনা যায়, রাজামৌলির ছবিতে ২০ মিনিটেরও কম সময়ের জন্য দর হেঁকেছিলেন ৯ কোটি রুপি। তবে কেন চটলেন তিনি?

আলিয়ার এক ঘনিষ্ঠের দাবি, এ সবই আসলে রটনা। রাজামৌলির সাথে আলিয়ার সম্পর্কে কোনো চিড় ধরেনি। তার কথায়, ‘আলিয়া রাজামৌলিকে খুবই সম্মান করে। কাজ করতে করতে ছবির সব শিল্পীর সাথেই ওর সুসম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। আলিয়া মোটেই ছবি নিয়ে অখুশি নয়। রাজামৌলিকে কখনো ইনস্টাগ্রামে ফলো করেনি আলিয়া। তাই আনফলো করার প্রশ্ন ওঠে না।’

তিনি আরো বলেন, ছবির প্রচারের সব ছবি আলিয়া সরিয়ে দিয়েছেন এটা ঠিক। তবে সব ছবির ক্ষেত্রেই আলিয়া এরকম করে থাকেন। ওই ঘনিষ্ঠজন আরো জানিয়েছেন, ছবিতে আলিয়ার অভিনয় খুবই প্রশংসা পেয়েছে। এমনকি জুনিয়র এনটিআরের সাথে তার একটি দৃশ্যও পছন্দ হয়েছে অনেকের।

তেলুগু স্বাধীনতা সংগ্রামী আল্লুরি সীতারামা রাজু ও কোমারাম ভীমের জীবনের উপর ভিত্তি করে তৈরি আরআরআর। এই পিরিয়ড ছবিতে রামারাজুর হবু স্ত্রীর চরিত্রে দেখা গিয়েছে আলিয়াকে। ৪০০ কোটির বাজেটে তৈরি আরআরআর মাত্র তিনদিনেই ৫০০ কোটি রুপির ব্যবসা করে ফেলেছে। হিন্দি, তামিল, তেলুগু- সব ভাষাতেই দারুণ ব্যবসা হাঁকাচ্ছে এই ছবি।

Back to top button