লেবাননকে দেউলিয়া ঘোষণা

লেবাননের উপপ্রধানমন্ত্রী সাদেহ আল-শামি রাষ্ট্র হিসেবে দেশটিকে দেউলিয়া ঘোষণা করেছেন। সোমবার (৪ এপ্রিল) তিনি এ ঘোষণা দেন বলে জানিয়েছে তুর্কি গণমাধ্যম আনাদুলু অ্যাজেন্সি। এ বিষয়ে স্থানীয় চ্যানেল আল-জাদিদকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে শামি বলেন, ‘বাঙ্কে দু লিবান (লেবাননের কেন্দ্রীয় ব্যাংক) এর সঙ্গে এই রাষ্ট্রটিও দেউলিয়া হয়ে গেছে। আর ক্ষতি যেহেতু হয়েই গেছে, আমরা চেষ্টা করবো জনগণের ওপর থেকে এই ক্ষতির মাত্রা কমিয়ে আনতে।’

তিনি জানান, যে ক্ষতি হয়েছে তা রাষ্ট্র ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকসহ অন্যান্য ব্যাংক এবং আমানতকারীরা ভাগাভাগি করে নেবেন।তিনি বলেন, ‘ক্ষতির এই ভাগাভাগি নিয়ে মতবিরোধের কোনো অবকাশ নেই।’ আনাদুলু অ্যাজেন্সি জানিয়েছে, ২০১৯ সালের শেষ দিক থেকে মারাত্মক অর্থনৈতিক সংকটের সঙ্গে লড়ছে লেবানন। এর মধ্যে চরম মাত্রায় মুদ্রার মান কমে যাওয়া ছাড়াও তেল ও চিকিৎসা সরঞ্জামাদি সংকটের মধ্যে আছে দেশটি।

জানা গেছে, দেশটির মুদ্রার মান ৯০ শতাংশ পর্যন্ত পড়ে গেছে। ফলে দৈনন্দিন সাধারণ চাহিদাগুলোও দেশটির জনগণ পূরণ করতে পারছিলো না। খাদ্য, পানি, স্বাস্থ্যসেবা এবং শিক্ষার মতো মৌলিক চাহিদাগুলো অধরা হয়ে যায় তাদের কাছে। জ্বালানি সংকটে বিদ্যুৎ ব্যবস্থায়ও ধস নেমেছিল।

আল-শামি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিকে উপেক্ষা করা যায় না। তাই ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলনের ব্যবস্থাটি সবার জন্য আর উন্মুক্ত রাখা যাচ্ছে না।’ সবশেষে তিনি বলেন, আশা করি, সবকিছুই একদিন স্বাভাবিক হবে। উল্লেখ্য, সংকটের কারণে বিদেশি মুদ্রায় অর্থ উত্তোলন লেবাননে ২০১৯ সাল থেকেই কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে।

Back to top button