লন্ডনে বাংলাদেশি স্কুলশিক্ষিকা সাবিনার হত্যাকারীর ৩৬ বছরের জেল

বহুল আলোচিত ব্রিটিশ বাংলাদেশি প্রাইমারী স্কুল শিক্ষিকা সাবিনা নেছার হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। শুক্রবার ঘোষিত এ রায়ে আসামি আলবেনিয়ান নাগরিক কোচি স্লামাজকে ৩৬ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার লন্ডন সময় সকাল সাড়ে ১০ টায় রায় ঘোষণা করা হয়। এসময় সাবিনা নেছার বাবা আব্দুর রউফ, মা আজিবুন নেছা, চাচা শাহীন মিয়া, দুই বোন ও বোন জামাই উপস্থিত ছিলেন।

এর আগের দিন ৭ এপ্রিল দুপুরে যুক্তরাজ্যের অল্ড বেইলি আদালতে মামলার বিচারকাজ চলে। লন্ডন সময় দুপুর ২ টা থেকে ৪ টা পর্যন্ত এ হত্যা মামলার চূড়ান্ত শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। মামলা পুরো বিষয় এবং হত্যাকারীর অতীত ইতিহাস এবং শিক্ষিকা সাবিনা নেছার আদ্যোপান্ত ২ ঘণ্টাব্যাপী উপস্থাপন করা হয়, এসময় সাবিনা নেছার হত্যার সিসিটিভি ফুটেজও দেখানো হয় আদালতে।

এদিকে এ রায়ের পর সাবিনার পরিবার তাৎক্ষণিক কোনো প্রতিক্রিয়া দেখায়নি। তবে উপস্থিত নারী আন্দোলনকারীরা এই রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, সে (আসামি) একটি জীবন নিয়েছে, এর বদলে তার আমৃত্যু জেল হওয়া উচিত ছিলো।
৭ এপ্রিল আদালতে এই মামলার চূড়ান্ত শুনানি চলাকালীন সময়ে সাবিনা নেছার বাবা ও মা একটি লিখিত বক্তব্য দেন। সেখানে তারা উল্লেখ করেন সাবিনা নেছা মেকাপ, হ্যান্ডব্যাগ ও জুতা পছন্দ করতো।

গত বছর ১৭ সেপ্টেম্বর বন্ধুর সাথে দেখা করতে যাওয়ার সময় সাউথ ইস্ট লন্ডনের ক্যাটর পার্কে নির্মম ভাবে হত্যা করা হয় সাবিনা নেছাকে। নির্মম এই হত্যাকাণ্ডে হত্যাকারী ২ ফিট লম্বা একটি ধাতব বস্তু দিয়ে ৩৪ বার মাথায় আঘাত করে সাবিনাকে। আদালতে রায় ঘোষণার সময় বলা হয় কোচি স্লামাজ একজন যৌণ বিকৃত সম্পন্ন মানুষ।

১৭ সেপ্টেম্বর রাশি গ্রিন প্রাইমারী স্কুলের শিক্ষিকা সাবিনা নেছাকে হত্যা করা হলেও প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর তার মৃতদেহ পাওয়া যায় ক্যাটর পার্কের কমিউনিটি সেন্টারের পাশে। পরবর্তীতে এই হত্যাকাণ্ডকে ঘিরে লন্ডনসহ পুরো ব্রিটেনের নারীরা নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে স্বোচ্চার হয়। বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন করেন তাদের নিরাপত্তা চেয়ে। আতঙ্কিত নারীরা সন্ধ্যার পর রাস্তায় বের হওয়ার জন্য সরকারের আইন-শৃঙ্খলা আরও জোরদার করতে সরকারের কাছে অনুরোধ জানান। এই ঘটনার পর রাজপরিবারের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ডাচেস অব ক্যাম্ব্রিজ কেট মিডলটন পর্যন্ত টুইট করেন। সারাদেশে হাজার হাজার নারী বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবাদ সমাবেশ করেন।

সাবিনা নেছার হত্যার সাথে জরিত থাকার অভিযোগে ২৬ সেপ্টেম্বর, হত্যাকাণ্ডের প্রায় ৯ দিন পর আলবেনিয়ান নাগরিক কচি স্লামাজকে ইস্ট সাসেক্স থেকে আটক করে পুলিশ। কচি স্লামাজ কোর্টে সাবিনা নেছাকে হত্যার দায় শিকার করেন চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে।

Back to top button