মোটরসাইকেল কিনতে প্রেমিকাকে অপহরণ করে ৩ লাখ টাকা দাবি!

প্রেমিকাকে অপহরণের পর মোটরসাইকেল কিনতে প্রেমিকার বাবার কাছে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবির অভিযোগ খন্দকার সাকিব সাদমান নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। অন্যথায় তার মেয়েকে মেরে ফেলার হুমকিও তিনি দেন বলে অভিযোগ। গত ২৭ মার্চ রাজধানীর মুগদা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনার পরদিন ২৮ মার্চ মেয়ের মামা বাদী হয়ে মুগদা থানায় একটি অপহরণ মামলা করেন। মামলার দিনই ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ মুগদার কাঠেরপুল এলাকায় অভিযান চালিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। তখন অপহরণকারী সাদমানকেও গ্রেফতার করা হয়।

তাকে উদ্ধারের পর ঘটনার বিস্তারিত জানায় ডিবি। ডিবির সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) আশরাফ উল্লাহ বলেন, মেয়েটিকে ফোন করে দেখা করতে বলেছিলেন সাদমান। বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার কথা বলে মেয়েটি রাজধানীর উত্তরার বাসা থেকে বেরিয়ে তার কথিত প্রেমিক সাদমানের সঙ্গে দেখা করতে যান। কিছুক্ষণ ঘোরাঘুরির পর সাদমান কৌশলে মেয়েটিকে রাজধানীর মুগদা কাঠেরপুল এলাকার একটি বাসায় নিয়ে জিম্মি করেন। পরে মেয়েটির মোবাইল নম্বর থেকে তার বাবাকে কল দিয়ে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন সাদমান।
তিনি বলেন, একটি মোটরসাইকেল কেনাসহ কিছু ধারের টাকা পরিশোধ করতে মেয়েটিকে অপহরণ করেন সাদমানসহ তিন বন্ধু। সাদমানকে গ্রেফতারের পর এই অপহরণকাণ্ডে জড়িত তার দুই বন্ধুর নাম-পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা পলাতক। তাদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Back to top button