সংসদ সচিবালয়ে সহকর্মীর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ নারীর

সংসদ সচিবালয়ে কর্মরত এক নারী তার সহকর্মীর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলেছেন। এ অভিযোগে ২০ মার্চ তিনি শেরেবাংলা নগর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। অভিযোগ, পরে তিনি হুমকির মুখে সেই জিডি তুলে নেন। এরপর ২৮ মার্চ সংসদ সচিব বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন ওই নারী।

সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ৯ এপ্রিল অভিযুক্তকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়ে সাত কর্মদিবসের মধ্যে লিখিত জবাব চেয়েছে কর্তৃপক্ষ। অভিযুক্ত কর্মকর্তার নাম মো. রফিকুল ইসলাম। তিনি সংসদ সচিবালয়ের কমিটি শাখা-৬ এ অফিসার। আর তার অধীনে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর হিসেবে কাজ করেন অভিযোগকারী নারী।

সংবাদমাধ্যমকে এই অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আব্দুস সালাম। তিনি বলেন, ‌‘এ সংক্রান্ত অভিযোগ পাওয়ার পর তাকে (অভিযুক্ত কর্মকর্তা) শোকজ করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংসদের ডিসিপ্লিন অ্যান্ড প্রিভিলেজ শাখার উপসচিব এস এম মঞ্জুর স্বাক্ষরিত ওই কারণ দর্শানোর নোটিশ থেকে জানা যায়, রফিকুল ইসলাম ওই নারীকে বিভিন্নভাবে যৌন হয়রানি করছিলেন। অনেক অনুনয়, অনুরোধেও তাকে থামাতে পারেননি ওই নারী। রফিকুল ইসলাম উল্টো তাতে হত্যার হুমকি পর্যন্ত দেন এবং জিডি তুলে নিতে বাধ্য করেন।

অভিযোগের বিষয়ে অভিযুক্ত কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি আসলে তাকে (অভিযোগকারী নারী) শাসন করতে চেয়েছিলাম। এই বিষয়টিই বড় করে দেখা হচ্ছে। তবে আমার বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে, এটা ঠিক। তাছাড়া সচিব স্যারের কাছে বিচারও দেওয়া হয়েছে। তাদের কাছেই এ ব্যাপারে জানতে পারবেন। আমি এর বেশি কিছু বলতে চাই না।

Back to top button