রংপুর বিএনপির আহবায়ক কমিটি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

রংপুর জেলা ও মহানগর বিএনপির মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে একই সঙ্গে জেলা ও মহানগরের নতুন আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করেছে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটি। প্রায় ৫ বছর পরে এই কমিটি ঘোষণায় কেউ কেউ খুশি হলেও বিএনপি’র একটি অংশ এই কমিটিতে অখুশি। তৃণমূল পর্যায়ে অনেকের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

জেলা বিএনপির কমিটিতে সাইফুল ইসলামকে আহ্বায়ক এবং আনিছুর রহমান লাকুকে সদস্য সচিব করা হয়েছে। জেলার ৩৬ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি করা হয়েছে। এদিকে, সামসুজ্জামান সামুকে আহবায়ক ও অ্যাডভোকেট মাহফুজ উন-নবী ডনকে সদস্য সচিব করে ৪২ সদস্য বিশিষ্ট রংপুর মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটি অনুমোদন করা হয়েছে। নতুন এই কমিটিতে মহানগরের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মিজু সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক এবং জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক রইচ আহমেদ যুগ্ম আহবায়ক করা হয়েছে।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে কমিটি অনুমোদন করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহানগর কমিটির আহবায়ক সামসুজ্জামান সামু। তিনি বলেন, বিদ্যমান কমিটি বিলুপ্ত করে রংপুর জেলা ও মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটি অনুমোদিত হয়েছে।

আগামী ৩ মাসের মধ্যে সম্মেলনের মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। এদিকে তৃণমূল পর্যায়ে বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীর সাথে কথা হলে অনেকেই নতুন আহবায়ক কমিটির বিষয়ে অখুশি ভাব প্রকাশ করেছেন। অনেকে মনে করছেন এতে দলীয় কোন্দল বাড়তে পারে।

২০১৭ সালের ২৬ মে কোনো সম্মেলন ও কাউন্সিল ছাড়াই রংপুর জেলা ও মহানগর বিএনপির কমিটি অনুমোদন করা হয়েছিল। ওই কমিটিতে সাইফুল ইসলামকে সভাপতি ও রইছ আহম্মেদকে সাধারণ সম্পাদক করে রংপুর জেলা বিএনপি এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর হোসেনকে (প্রয়াত) সভাপতি ও শহীদুল ইসলাম মিজুকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগর বিএনপি কমিটি গঠন করা হয়েছিল।

Back to top button