লাল টেলিফোনের প্রভাবে ডা. জোবায়দার আপিল খারিজ : রিজভী

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনে সহযোগিতার অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলা বাতিলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবায়দা রহমানের করা আবেদন (লিভ টু আপিল) খারিজের পেছনে লাল টেলিফোনের প্রভাব রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

রোববার (১৭ মার্চ) নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক প্রতিবাদ সভায় এসব কথা বলেন তিনি। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবায়দা রহমানের বিরুদ্ধে দুদকের করা মামলার প্রতিবাদে এ প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল।

দুদক চেয়ারম্যানের কড়া সমালোচনা করে রিজভী বলেন, যারা হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে, কানাডায় বেগম পাড়া তৈরি করেছে, সেই শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সাহস আপনাদের নেই। কারণ আপনি হচ্ছেন আওয়ামী লীগের ড্রাইভার। শেখ হাসিনা যেভাবে বলে আপনি সেইভাবে গাড়ি চালান। আপনার নিজস্ব কোনো সত্তা নেই। আপনার কোনো স্বাধীনতা নেই। তা না হলে একজন স্বাধীনতা ঘোষকের পুত্রবধূর বিরুদ্ধে এ কাপুরুষিত মামলা করতে পারতেন না।

তিনি বলেন, এক এগারোর জরুরি সরকার এবং আওয়ামী লীগের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। সে সময় আজকের এই প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন মঈন উদ্দীন-ফখরুদ্দীনের সরকার আমাদের আন্দোলনের ফসল। তাই দুদক চেয়ারম্যানকে বলবো, সেই কারণেই কি ডা. জোবায়দা বিরুদ্ধে ১/১১’র সময় করা মিথ্যা পুরনো মামলা চালু করা হয়েছে? জনগণ কিন্তু তাই বিশ্বাস করে।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, দুদক জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে যে মামলা দিচ্ছে তা একটাও সত্য না। সব মামলা কাল্পনিক। নিম্ন আদালতে রায় হলে উচ্চ আদালতে আপিলের সুযোগ থাকে। কিন্তু বাংলাদেশের আইন আদালত শেখ হাসিনার আঁচলে বন্দি। এটার প্রমাণ একজন রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী, যিনি গণতন্ত্রের জন্য বারবার লড়েছেন সেই বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে বন্দি করে রাখা।

মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক হেলেন জেরিন খান, সহসভাপতি চৌধুরী নায়াব ইউসুফ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

Back to top button