গৃহবধূকে বাড়ি থেকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ!

বাবার বাড়ি থেকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অসুস্থ অবস্থায় গৃহবধূকে (১৮) পরিবার উদ্ধার করে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করেছে। পিরোজপুর সদর উপজেলার নরখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আ. জা. মো. মাসুদুজ্জামান জানান, খবর পেয়ে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে চিকিৎসা ও ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধূ জানান, তার স্বামী ঢাকায় চাকরি করার কারণে তিনি বাবার বাড়ি সদর উপজেলার নরখালী গ্রামে বসবাস করেন। তাকে সদর উপজেলার কুমিরমারা-বেকুটিয়া ফেরিঘাট এলাকার বখাটে মাঈনুল বেশকিছু দিন যাবৎ মোবাইল ফোনে ও সরাসরি বিভিন্নভাবে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। এতে রাজি না হওয়ায় তিনি ক্ষিপ্ত হন। শুক্রবার রাতে তার বাবা ঘর থেকে বের হলে সেই সুযোগে মাঈনুলসহ আরও কয়েকজন ঘরে প্রবেশ করেন। তারা অস্ত্রের মুখে তাকে তুলে নিয়ে যান। পরে পাশের একটি বাগানে নিয়ে তাকে পালাক্রমে কয়েকজন ধর্ষণ করলে তিনি অজ্ঞান হয়ে যান।
তিনি আরও জানান, ‌‘পরে ভোরে জ্ঞান ফিরলে তার চিৎকার ও কান্নায় পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।

Back to top button