সাতক্ষীরা পাটকেলঘাটায় সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের স্বীকৃতি পেতে দারে দারে ঘুরছেন মা

মোঃ শাহিনুর রহমান শাহিন,সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধিঃ পাটকেলঘাটা এলাকায় সন্তানের পিতৃ পরিচয় পেতে দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন দিনমজুর পিতার কন্যা স্বপ্না খাতুন। তার মেয়ে শিয়ালডাঙা জেসি এস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্রী মাসুমা আক্তার মীমের বয়স বর্তমানে ১১ বছর। বাবার আদর , স্নেহ, ভালবাসা থেকে বঞ্চিত সে। বাব-দাদার পরিচয়ে লেখা পড়া শিখে সবার মুখ উজ্জ্বল করার স্বপ্ন তার।
মীমের মা স্বপ্না খাতুন (৩০) জানান, আমি নানার বাড়ি পাটকেলঘাটার ভারসা গ্রামে থাকার সূত্রে ২০০৯ সালে সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানা এলাকার ভারসা গ্রামের মাহাফিল উদ্দিন মোড়লের ছেলে একাধিক বিবাহের হোতা মাসুম রেজার সাথে ভালবাসার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক সময়ে সেটা শারীরিক সম্পর্কে গড়ায়। এক পর্যায়ে আমি গর্ভবতী হয়ে পড়লে মাসুম আমাকে বিয়ে করার প্রতিশ্রæতি দিয়ে অবৈধ গর্ভপাত ঘটায়। বাচ্চা নষ্ট করার পর সে আমাকে বিয়ে করতে না চাইলে আমি আইনের আশ্রয় নেই।
পরবর্তীতে মামলা থেকে বাচতে ২০১০ সালে দুই লক্ষ টাকা কাবিনে সে আমাকে বিয়ে
করে। এর পর আমাদের ঘরে জন্ম নেয় মীম। কিন্তু জন্মের পর থেকে মাসুম ও তার পরিবার মীমকে আজ পর্যন্ত মেনে নেয়নি।
মাসুমা আক্তার মীম জানায়, সে তার নানা রাজ্জাক বিশ্বাসের বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করে। মায়ের অন্যত্র বিয়ে হয়েছে। আমি একা হয়ে গেছি। নানার অভাবের সংসার। আমার সকল খরচ যোগাতে তিনি অক্ষম। জন্ম থেকে বাবার আদর, স্নেহ, ভালবাসা কিছুই পাইনি। আমি আমার বাবার ঘরে যেতে চাই। দাদা-বাবার ভালবাসা চাই। আমি তো কোন দোষ করিনি। আমার কেন অবহেলা আর ঘৃৃণায় দিন কাটাতে হবে।

স্বপ্না খাতুন তার মেয়ের পিতৃ পরিচয় ফিরে পেতে সচেতন মহল সহ বিভিন্ন সংগঠনের সহযোগিতা কামনা করেছেন। এঘটনায় মাসুম রেজার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

Back to top button