ঘূর্ণিঝড় অশনি’র প্রভাব শুরু

প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র প্রভাবে তিন উপকূলীয় বিভাগে অতি ভারী বর্ষণের আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।ইতোমধ্যে খুলনা, বাগেরহাটসহ কয়েক জায়গায় বৃষ্টি হয়েছে। আবহাওয়াবিদ খো. হাফিজুর রহমান জানিয়েছেন, পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত প্রবল ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে মঙ্গলবার সকাল ৯টা পর্যন্ত খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

যদিও ঘূর্ণিঝড় অশনি’র বাংলাদেশে সরাসরি আঘাত হানার আশঙ্কা কম।

অন্যদিকে ভারতের আবহাওয়া দপ্তর বলছে, মঙ্গলবার থেকে ওড়িশার দিকে ঘুরতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র গতিপথ। সন্ধ্যা নাগাদ পৌঁছতে পারে উপকূলের খুব কাছে। পূর্বাভাস অনুযায়ী ‘অশনি’র প্রভাবে ভিজবে উপকূলবর্তী সমস্ত জেলাই। খবর আনন্দবাজার।

ইতিমধ্যেই ‘অশনি’র প্রভাবে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় সোমবার সকাল থেকে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কলকাতায় বৃষ্টির মাত্রা আরও বাড়বে বলেই জানিয়েছে হাওয়া অফিস। নদিয়াতেও সকাল থেকেই ভারী বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে।

দুই ২৪ পরগনাতেই সোমবার হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া দপ্তর। এর পর মঙ্গলবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। সোম-মঙ্গলবার ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে হাওয়া বইলেও বুধ থেকে শুক্র পর্যন্ত হাওয়ার গতিবেগ থাকবে ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার। সোমবার সকালে বৃষ্টিপাতের পর বিকেল থেকেও উত্তর ২৪ পরগনায় আবার বজ্রবিদ্যুৎ-সহ মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

সোমবার বেলা ১২টা পর্যন্ত পূর্ব মেদিনীপুরের দিঘা উপকূলে বৃষ্টি না হলেও পরে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। মঙ্গলবার থেকে পূর্ব মেদিনীপুর জুড়ে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বাড়তে পারে বৃহস্পতিবার। সঙ্গে জোরালো হাওয়া বইবে। ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার গতিবেগে হাওয়া বইতে পারে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

কলকাতায় সোমবার সকালেই মাঝারি বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়েছে। বেলা ১২টা নাগাদ বৃষ্টি থামলেও বিকেল থেকে আবার বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। মঙ্গল থেকে বাড়বে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ। বৃহস্পতি এবং শুক্রবার কলকাতায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টি হতে পারে। কলকাতায় হাওয়ার গতিবেগ থাকবে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার। সোমবার সকালের বৃষ্টিতেই কলকাতার বেশ কিছু এলাকায় জল জমে গিয়েছে।

হাওড়া এবং হুগলিতে সোমবার সকালে মাঝারি বৃষ্টিপাত হয়েছে। সোমবার দুই জেলাতেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। মঙ্গলবার থেকে বাড়বে বৃষ্টির পরিমাণ। হাওয়ার গতিবেগ থাকবে ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা।

ঝাড়গ্রাম এবং পশ্চিম মেদিনীপুরে সোমবার সকালে জায়গায় জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাত হলেও মঙ্গলবার সকাল থেকে দুই জেলা জুড়ে বাড়বে বৃষ্টিপাতের বেগ। বাড়বে হাওয়ার গতিবেগও। মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের সঙ্গে বজ্রপাতের পূর্বাভাসও দিয়েছে হাওয়া অফিস।

নদিয়াতে সোমবার সকাল থেকে শুরু হয়েছে মাঝারি বৃষ্টিপাত। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে পারে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ। বৃহস্পতি এবং শুক্রতে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। মুর্শিদাবাদেও একই রকম আবহাওয়া থাকার পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। দুই জেলাতেই হাওয়ার গতিবেগ থাকবে ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা।

Back to top button