সঙ্গীর কনডম ফুটো করার অভিযোগে নারীকে সাজা

সঙ্গীর কনডম ফুটো করার অভিযোগে পশ্চিম জার্মানিতে এক নারীকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত। রায় দেয়ার সময় আদালত বলেছেন, জার্মানিতে এটি একটি অন্যতম চুরির ঘটনা হিসেবে বিবেচিত হবে। তাই তাকে এই সাজা দেয়া হচ্ছে।

পশ্চিম জার্মানির বিলেফেল্ড শহরের একটি স্থানীয় আদালতের এই রায়ের খবর প্রকাশ করেছে দেশটির কয়েকটি গণমাধ্যম।

এতে বলা হয়, ২০২১ এর দিকে অনলাইনে পরিচয়ের পরে ৪২ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান ৩৯ বছর বয়সী ওই নারী। এরপর থেকে তারা বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে ছিলেন। তাদের মধ্যে নিয়মিত শারীরিক সম্পর্ক হতো।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে থাকার সময় ওই নারী বুঝতে পারছিলেন তাদের সম্পর্ক যেকোনো সময় ভেঙ্গে যেতে পারে।

একারণে তিনি দুজনের মধ্যে বন্ধন গড়তে সন্তান নিতে গর্ভবতী হতে সঙ্গীর কনডম ছিদ্র করে দিয়েছিলেন। এর কিছুদিন পরে কনডম ছিদ্র করার কথা সঙ্গীকে জানিয়ে ওই নারী নিজেকে গর্ভবতী বলে দাবি করেন। পরে ওই ব্যক্তি তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন। যদিও এই মামলার ধারা কি হবে এনিয়ে দ্বিধায় ছিলেন তিনি।

এদিকে এই মামলার রায়কে ঐতিহাসিক বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির বিচারক অ্যাস্ট্রিড সালেউস্কি। তিনি বলেন, আমরা আজ এখানে ইতিহাস লিখছি। ওই নারীর সঙ্গে সম্পর্কটি ধর্ষণ ছিল কি না এই তদন্ত শেষে এই ঘটনাকে তার প্রতারণা ও চুরি বলে সাব্যস্ত করেন আদালত।এতে বলা হয়, যৌন মিলনের সময় গোপনে সঙ্গীর অজান্তে যদি কনডম খুলে ফেলা হয় সেটা চুরি বলে বিবেচিত হবে।

এখানে সেটিই ঘটেছে। পুরুষের অজান্তে বা তার সম্মতি ছাড়াই ওই নারী এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন। ফলে ওই নারীকে সাজা ভোগ করতে হবে। সূত্র – ডয়েচে ভেলে

Back to top button