অভিনেত্রী পল্লবীর মৃত্যুতে নতুন মোড়

কলকাতার অভিনেত্রী পল্লবী দে’র মৃত্যুর পর তার প্রেমিক সাগ্নিক চক্রবর্তীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে আটক করেছে পুলিশ। তারা নিজেদের ‘বিবাহিত’ পরিচয় দিয়ে গড়ফার গাঙ্গুলি বাগানের একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছিলেন। অভিনেত্রী শুটিংয়ে গেলে ওই ফ্ল্যাটে অন্য মেয়েকে আনতেন তার প্রেমিক।

এমনকি কয়েক মাস আগে গোপনে বিয়েও করেছেন সাগ্নিক- এমনটাই দাবি করেছেন পল্লবীর বাবা।

পল্লবীকে মারধরের অভিযোগ এনে তার বাবার দাবি, সাগ্নিক আমার মেয়েকে মারধর করত। পল্লবীর অনেক বন্ধুই সে রকম চিহ্ন দেখে ব্যাপারটা আমাকে জানিয়েছে। আমরাও মেয়ের শরীরে দাগ দেখেছি।

এদিকে পল্লবী দে’র মৃত্যু রহস্যে নতুন মোড় এসেছে। তিনি যার সঙ্গে লিভ-ইন করতেন, সেই প্রেমিক সাগ্নিক চক্রবর্তীর নামে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা করেছেন পল্লবীর বাবা নীলু দে ও মা সংগীতা দে। বর্তমানে সে পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। পুরো বিষয়টি এখন পুলিশি তদন্তের ওপর নির্ভর করছে। পল্লবীর মৃত্যু কি স্রেফ আত্মহত্যা নাকি খুন, সেটা তদন্তের পরই জানা যাবে।

প্রসঙ্গত, পল্লবী-সাগ্নিক যে ফ্ল্যাটে থাকতেন, রোববার (১৫ মে) সকালে সেখান থেকেই অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পল্লবীর আকস্মিক মৃত্যুর খবরে শোকাহত তার সহকর্মীরা।

সূত্র: আনন্দবাজার

Back to top button