ঢাবিতে ছাত্রদল নেতা-কর্মীদের উপর ছাত্রলীগের হামলার অভিযোগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) এই হামলার ঘটনা ঘটে৷

হামলায় আতিক মোর্শেদ নামের এক ছাত্রদল কর্মী আহত হয়েছেন৷ এ ছাড়া আরও কয়েকজন নেতা-কর্মী ছাত্রলীগের মারধরের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছে ছাত্রদল৷

হামলার জন্য ছাত্রলীগকে দায়ী করেছেন ছাত্রদল নেতারা। তবে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে ছাত্রলীগ। সংগঠনটির নেতারা বলছেন, সাধারণ শিক্ষার্থীরা সংঘবদ্ধ হয়ে ছাত্রদলের শিষ্টাচারবহির্ভূত কর্মকাণ্ডের ‘প্রতিবাদ’ জানিয়ে থাকলে তাঁরা সেটিকে স্বাগত জানান।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘হত্যার হুমকি’ দিয়েছেন অভিযোগ করে রোববার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে প্রতিবাদ সমাবেশ করে ছাত্রদল৷ সেখানে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ বলেন, শেখ হাসিনা আমাদের হৃদয়ে আঘাত করেছেন৷ আমাদের আদর্শিক মাকে নিয়ে তিনি কটূক্তি করেছেন৷ তাই আমরা উত্তপ্ত৷ তিনি আরও বলেন, আমাদের আবেগ, আমাদের আদর্শিক মা খালেদা জিয়াকে নিয়ে কটূক্তি করার চেষ্টা করবেন না৷ সৎ সাহস থাকলে পারলে ছাত্রদলকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করুন৷’

ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদকের ওই বক্তব্যের ভিডিও দুপুর থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে৷ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের বেশ কয়েকজন নেতা ফেসবুকে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদককে তাঁর বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান। ক্ষমা না চাইলে তাঁকে ‘উপযুক্ত জবাব’ দেওয়ার ঘোষণা দেন তাঁরা। এরপরই সন্ধ্যায় টিএসসিতে হামলার ঘটনা ঘটে।

ছাত্রলীগের হামলায় আতিক মোর্শেদ নামের ছাত্রদলের এক কর্মী ঘাড়ে আঘাত পেয়েছেন বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সদস্যসচিব আমানউল্লাহ আমান৷ তিনি বলেন, শেখ হাসিনাকে নিয়ে আমাদের সাধারণ সম্পাদক কোনো অপমানজনক বক্তব্য দেননি। গঠনমূলক সমালোচনা করেছেন৷ ছাত্রলীগ যে হামলা করেছে, তা পৈশাচিক ও শিষ্টাচারবহির্ভূত৷

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, ছাত্রদলের ওপর হামলার প্রশ্নই আসে না। ছাত্রদলকে তাঁরা গণতান্ত্রিকভাবে মোকাবিলা করতে চান।

Back to top button