শনিবার পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের একটি প্রাইমারি স্কুলে বন্দুকধারীর এলোপাতাড়ি গুলিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ ২১ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আগামী শনিবার পর্যন্ত দেশটির জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার নির্দেশ দিয়েছে হোয়াইট হাউজ। হামলার পরপরই এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের সব সরকারি ভবন, মাঠ, সামরিক স্থাপনা, নৌ ঘাঁটি এবং নৌ যানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে ওড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, টেক্সাস অঙ্গরাজ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে হামলায় হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেন, ‌‘অনেক কিছু আছে যা আমরা এখনো জানি না। আমরা জানি, অনেক বাবা-মা তাদের সন্তানকে আর কখনো দেখতে পাবে না। তারা কখনই সন্তানকে আর বিছানায় লাফিয়ে জড়িয়ে ধরতে পারবেন না। সন্তান হারানো আত্মার একটি টুকরো ছিঁড়ে ফেলার মতো বিষয়।’

এর আগে নিজের পারিবারিক ট্র্যাজেডির কথা স্মরণ করে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সেইসঙ্গে অস্ত্র ব্যবহারে নিয়ন্ত্রণ আইন প্রসঙ্গে কথা বলেন জো বাইডেন। এই বেদনাকে মার্কিন আইনপ্রণেতাদের অ্যাকশনে রূপ দেওয়ার অনুরোধ করে তিনি বলেন, ‘আমি অসুস্থ এবং এমন ঘটনায় ক্লান্ত। আমাদের কাজ করতে হবে। আমাকে বলবেন না, এমন হত্যাকাণ্ডের ওপর প্রভাব ফেলতে পারি না আমরা।

আজ বুধবার বিবিসি, এবিসি নিউজ, আল জাজিরাসহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। খবরে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের উভালদে শহরের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বন্দুকধারীর গুলিতে ১৮ শিক্ষার্থী নিহত হন। তারা দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী। নিহতদের মধ্যে আরও তিন শিক্ষক রয়েছেন।

ঘটনার পর তাৎক্ষণিক এক সংবাদ সম্মেলনে টেক্সাস গভর্নর গ্রেগ অ্যাবোট জানিয়েছেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে হামলা চালানো সন্দেহভাজন অস্ত্রধারীর বয়স ১৮ বছর। তার নাম সালভাদর রামোস। সে ওই এলাকারই বাসিন্দা।

বন্দুকধারী পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন জানিয়ে গভর্নর আরও বলেন, সে ভয়ঙ্করভাবে শিক্ষকসহ শিক্ষার্থীকে গুলি করে হত্যা করেছে। ঘটনাটি সে একাই ঘটিয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। নিহত সালভাদর রামোস উভালদে শহরের উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে।

Back to top button