২০ দিনে ১০ জন খুন, আতংকে মানুষ

আতংকিত জনপদে পরিণত হয়েছে কুষ্টিয়া। ২০ দিনে খুন হয়েছে ১০ জন। ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে বেশিরভাগ মানুষকে খুন করা হয়েছে। এক সময়ের চরমপন্থিদের অভয়ারন্য খ্যাত কুষ্টিয়া জেলায় আবারও বেড়েছে খুন-খারাপির ঘটনা। দোসরা মে- ঈদের আগের দিন কুষ্টিয়া সদরের ঝাউদিয়া-আস্তানগরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষে সংঘর্ষে কুপিয়ে খুন করা হয় ৪ জনকে। এর ১৮দিন পর ২১ মে ঝাউদিয়া- কালিতলায় পারিবারিক বিরোধে কুপিয়ে হত্যা করা হয় একজনকে।

১৮ মে সদর উপজেলার দহকুলাতে খুন হয়েছে এক স্কুলছাত্র। আর ২০ মে শহরের চর মিলপাড়ায় পারিবারিক কলহে খুন হয়েছে আরো একজন। আলোচিত খুনের ঘটনা ঘটে ১১মে কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে। কুপিয়ে হত্যা করা হয় জাসদ যুবজোট নেতা মাহবুব খান সালামকে। দোসরা মে থেকে ২১ মে ২০ দিনে খুন হয়েছে মোট ১০ জন।

একের পর এক খুনের ঘটনা নিয়ে কী বলছেন- রাজনীতিবিদ ও সচেতন নাগরিকরা। সামাজিক ও পারিবারিক দন্দকেই কারন বলে মনে করছেন- তারা। তাদের আশঙ্কা- আবার খারাপ হয়ে পড়ছে কুষ্টিয়ার পরিবেশ।

সমাজবিজ্ঞানীরা জানান, মানুষের মুল্যবোধ নষ্ট হয়ে যাওয়া ও দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির কথা।

পুলিশ বলছে, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘটছে খুনের ঘটনা। সকল পর্যায়ে বিট পুলিশের মাধ্যমে তৎপরতা বাড়ানোর কথা বলছেন তারা।

Back to top button