আমেরিকায় হামলা চালাতে পারে রাশিয়া

ইউক্রেনকে যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া মাল্টিপল লঞ্চ রকেট সিস্টেম (এমএলআরএস) রাশিয়ায় গোলা ছুঁড়তে ব্যবহৃত হলে পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে রাশিয়া যুক্তরাষ্ট্রে পারমাণবিক হামলা চালাতে পারে। রাশিয়ার সামরিক বিশেষজ্ঞ ও আর্সেনাল অব দ্য ফাদারল্যান্ড ম্যাগাজিনের সম্পাদক আলেক্সি লিয়নকভ এ কথা বলেছেন।

লিয়নকভ বলেন, ইউক্রেন যদি রাশিয়ার সীমান্তবর্তী ঘনবসতিপূর্ণ এলাকাগুলোতে গোলা ছুঁড়তে যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি এমএলআরএস ব্যবহার করে, রাশিয়া বিষয়টিকে গণবিধ্বংসী পারমাণবিক অস্ত্রের ব্যবহার হিসেবে গণ্য করবে। তিনি বলেন, পারমাণবিক অস্ত্র যেমন গুরুতর ক্ষতি সাধনের উদ্দেশে ব্যবহার হতে পারে, রাশিয়ার ঘনবসতিপূর্ণ অঞ্চলে হামলা তেমন ক্ষতি সাধন করবে। সেক্ষেত্রে রাশিয়া পারমাণবিক অস্ত্র নীতির মৌলিক নীতি অনুসরণ করবে। সোজাভাবে বললে, রাশিয়া যুক্তরাষ্ট্রের নীতি-নির্ধারণী কেন্দ্রগুলোতে আঘাত হানবে।

তিনি আরও বলেন, মার্কিন অস্ত্রের সাহায্যে রুশ ভূখণ্ডে বড় হামলা ও ক্ষতিসাধন হলে যুক্তরাষ্ট্র ওই হামলার সহযোগী হয়ে পড়বে। রাশিয়া তখন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করবে। এ ধরনের যুদ্ধ ঘোষণার পরের পদক্ষেপগুলিও অবিলম্বে গ্রহণ করা হবে। এর আগে প্রকাশিত খবরে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্র সরকার ইউক্রেনের জন্য সামরিক সহযোগিতার নতুন একটি প্যাকেজ ঘোষণার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এবারে যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে এমএলআরএস ও অন্যান্য অগ্রসর প্রযুক্তির অস্ত্র দিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, ইউক্রেনের কর্মকর্তারা বেশ কিছুদিন ধরে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে এমএলআরএস ও অন্যান্য অস্ত্র চাইলেও মার্কিন কর্মকর্তারা সাড়া দেননি। ইউক্রেনের সেনাবাহিনী এসব অস্ত্র রাশিয়ার বিরুদ্ধে হামলায় ব্যবহার করবে বলে তারা আশঙ্কা করছিলেন। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা ইউক্রেনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক রুদ্ধদ্বার বৈঠকে এমএলআরএসের মতো অস্ত্র রাশিয়ায় হামলায় ব্যবহার না করার নির্দেশনা দেন বলে একাধিক গণমাধ্যমে খবর বেরোয়।

Back to top button