সংকট মোকাবিলায় রাশিয়া থেকে তেল নিচ্ছে শ্রীলঙ্কা

অর্থনৈতিক সংকটে থাকা শ্রীলঙ্কা তাদের একমাত্র তেল শোধনাগারটি কার্যক্রম পুনরায় চালু করতে রাশিয়ার কাছ থেকে গতকাল তেল সংগ্রহ করেছে। যেখানে খুব শিগগিরই ইউরোপীয় নিষেধাজ্ঞা আসতে পারে বলে জানিয়েছেন দেশটির জ্বালানি বিষয়ক মন্ত্রী।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, দ্বীপরাষ্ট্রটি তার স্বাধীনতার পর সবচেয়ে খারাপ অর্থনৈতিক মন্দার কবলে পড়েছে। জ্বালানি তেল ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় পণ্যের ঘাটতির কারণে দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে ২২ মিলিয়ন মানুষের জীবন।

শ্রীলঙ্কার বৈদেশিক মুদ্রার সংকটের কারণে অপরিশোধিত তেল আমদানির জন্য সরকার অর্থ বরাদ্দ দিতে না পারায় গত মার্চ মাসে দেশের একমাত্র রাষ্ট্রপরিচালিত সিলন পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (সিপিসি) শোধনাগারটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। জ্বালানি মন্ত্রী কাঞ্চন উইজেসেকেরা বলেছেন, ‘তেলের মূল্য বাবদ ৭৫ মিলিয়ন ডলার জোগাড় করতে ব্যর্থ হওয়ায় কলোম্বো বন্দরের কাছে উপকূলে প্রায় এক মাসেরও বেশি সময় ধরে রাশিয়ান ক্রুডবাহী হাজাজ অপেক্ষা করছিল। ইউক্রেনে আক্রমণের পর রাশিয়ান ব্যাঙ্কের ওপর মার্কিন নেতৃত্বাধীন নিষেধাজ্ঞা ও কূটনৈতিক প্রতিবাদ সত্ত্বেও রাশিয়া থেকে সরাসরি অপরিশোধিত তেল, কয়লা, ডিজেল ও পেট্রলের সরবরাহের বিষয়ে মস্কোর সঙ্গে আলোচনা করেছে কলম্বো।

উইজেসেকেরা কলম্বোতে সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘রাশিয়া থেকে সরাসরি তেল সরবরাহের জন্য আমি রাশিয়ান রাষ্ট্রদূতকে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুরোধ করেছি। শুধু অপরিশোধিত তেলে আমাদের ঘাটতি দূর হবে না, এ জন্য অন্যান্য পরিশোধিত (পেট্রোলিয়াম) পণ্যও প্রয়োজন।

দুবাইভিত্তিক মধ্যস্থতাকারী প্রতিষ্ঠান কোরাল এনার্জির মাধ্যমে প্রায় ৯০ হাজার টন সাইবেরিয়ান লাইট ক্রুড ওয়েল নিয়ে শোধনাগারে পাঠাবে শ্রীলঙ্কা।

যাযাদি/এসএইচ

Back to top button