বিরোধী দলগুলোর ঐক্য বিনষ্টে নানা ষড়যন্ত্র করছে সরকার

গণফোরাম সভাপতি মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেছেন, সরকারবিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো যাতে ঐক্য গড়ে তুলতে না পারে সেজন্য বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের নীল নকশা তৈরি করছে। আজ সোমবার দলটির নির্বাহী পরিষদের জরুরি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সভায় মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ক্যাম্পাসে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার ঘটনায় ছাত্রলীগের কেউ গ্রেপ্তার না হওয়ায় প্রমাণিত হয়েছে রাষ্ট্রে আইনের শাসন অনুপস্থিত। ক্ষমতাসীন নিশিরাতের সরকারের বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা সংবিধান পরিপন্থী।

তিনি বলেন, দেশে আদর্শ ভিত্তিক রাজনীতি ধ্বংস করে লুটপাট জবরদখলের মাধ্যমে নোংরা পরিবেশ সৃষ্টি করছে ক্ষমতাসীন অবৈধ আওয়ামী লীগ সরকার। বাংলাদেশের বৈষম্যের বিরুদ্ধে মুক্তির সংগ্রামের সূতিকাগার ঢাবিতে ক্ষমতসীন সরকারের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ বিরোধী মতের ছাত্রদলের নারী নেত্রী সহ নেতাকর্মীদের উপর বর্বর হামলা চালিয়েছে তা অত্যন্ত ন্যক্কারজনক। আগ্নেয়াস্ত্রসহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রের মহড়া দিয়ে বিরোধী মতের শান্তিপূর্ণ মিছিলের উপর হামলা শিক্ষার পরিবেশ ব্যাহত করেছে এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভীতি সঞ্চয় করেছে।

হামলাকারীরা চিহ্নিত হওয়া সত্ত্বেও তাদের প্রশাসন গ্রেপ্তার করছে না। অথচ যারা আহত হয়েছে তাদের উপর মিথ্যা মামলা ও গ্রেপ্তার অব্যাহত রয়েছে।সরকারকে উদ্দেশ করে মন্টু বলেন, হঠাৎ করে চালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি দেশের মানুষের জন্য অশনি সংকেত। অবিলম্বে চালসহ সকল নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের বাজার নিয়ন্ত্রণ করুন। তা না করে বিরোধী মতের দলগুলোর ঐক্য বিনষ্ট করতে সরকার বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের নীল নকশা তৈরি করছে। জনগণের অধিকার আদায়ে রাজপথে যাতে শক্তিশালী ঐক্য গড়ে উঠতে না পারে। সেই সুযোগে ক্ষমতা দখলকারীরা ২০১৪, ২০১৮ বা নতুন কোন কৌশলে জনগণের ভোটাধিকার হরণ করার ফন্দি আঁটে। গণতন্ত্র রক্ষা ও জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠায় এই সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন নয় দাবীতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

সভায় গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক সুব্রত চৌধুরী বলেন, রাষ্ট্রের সকল প্রতিষ্ঠানগুলো দলীয়করণ করে অবৈধ সরকারের আজ্ঞাবহ দাসে রূপান্তরিত করেছে। সংবাদপত্র ও টেলিভিশনের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করার মাধ্যমে শক্তিশালী প্রিন্ট মিডিয়া, ইলেক্ট্রোনিক মিডিয়া ও সাংবাদিক গড়ে উঠার অন্তরায়। গুম, খুন ও ক্রসফায়ারের মাধ্যমে মানবাধিকার লঙ্ঘন করে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ, এ.কে.এম. জগলুল হায়দার আফ্রিক, মহসীন রশিদ, মহিউদ্দিন আব্দুল কাদের, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক প্রমুখ।

Back to top button