ফুলবাড়ীতে রসুনের দাম বেড়েছে দ্বিগুণ

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে খুচরা বাজারে রসুনের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। খুচরা বাজারে ৪০ টাকার রসুন এখন বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৮৫ টাকা কেজি দরে। রসুনের দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন ক্রেতা সাধারণ।

ফুলবাড়ী পৌর বাজারের খুচরা ও পাইকারি বাজার ঘুরে দেখা যায়, গত এক সপ্তাহ আগে পাইকারি বাজারে রসুন ৩০ থেকে ৩৫ টাকা কেজি দরে রসুন বিক্রি হয়েছিল। আর তা খুচরা বাজারে বিক্রি হয়েছিল ৪০ থেকে ৪২ টাকা কেজি দরে। বর্তমানে একই রসুনের মূল্য বৃদ্ধি পেয়ে পাইকারি বাজারেই বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৭২ টাকা কেজি। আর খুচরা বাজারে সেটি বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৮৫ টাকা কেজি দরে। মঙ্গলবার (৩১ মে) সকালে ফুলবাড়ী পৌর বাজারে তরকারি কিনতে আসা শাখাওয়াত হোসেন বলেন, কয়েক দিন আগে ৪০ থেকে ৪২ টাকা কেজি দরে রসুন কিনেছেন। আজ আবার বাজারে এসে দেখছেন রসুনের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়ে গেছে। এভাবে দাম বাড়তে থাকলে সাধারণ মানুষ চলবে কীভাবে? নিত্যপণ্যের দাম বাড়লেও মানুষের আয় তো আর বাড়ছে না?

ফুলবাড়ী পৌর বাজারের খুচরা সবজি ব্যবসায়ী আব্দুল লতিফ বলেন, রসুনের দাম অনেক বেড়েছে। পাইকারি বাজার থেকে ৭০ থেকে ৭৫ টাকা কেজি দরে রসুন কিনে খুচরা বাজারে বিক্রি করছেন ৮০ থেকে ৮৫ টাকা কেজি দরে। ফুলবাড়ী পৌর বাজারের পাইকারি রসুন ব্যবসায়ী সামসুল ইসলাম বলেন, রসুনের আমদানি কম হওয়ার কারণে দাম বেড়েছে। নাটোরসহ দিনাজপুরের বিভিন্ন এলাকা থেকে রসুন আমদানি করা হয়। এক সপ্তাহ আগে রসুনের দাম অনেকটা কম থাকলেও বর্তমানে পাইকারি বাজারে রসুন বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৭২ টাকা কেজি দরে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বাজার মনিটরিং কমিটির সভাপতি মো. রিয়াজ উদ্দিন বলেন, বাজার নিয়মিতভাবে মনিটরিং করা হচ্ছে যাতে করে অযাচিতভাবে কেও কোনো পণ্যের দাম না বাড়াতে না পারে।

Back to top button