প্রয়োজনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন হবে

সরকারের পদক্ষেপের কারণে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা কমে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, মামলা করলেও দ্রুত গ্রেফতার করা হচ্ছে না। মঙ্গলবার (৩১ মে) সচিবালয়ে গণমাধ্যম কেন্দ্রে গণমাধ্যমকর্মী আইন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও ডাটা সুরক্ষা আইন নিয়ে আয়োজিত ‘বিএসআরএফ সংলাপ’ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা বলেন। বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) এ সংলাপের আয়োজন করে। মন্ত্রী বলেন, ‘প্রয়োজন হলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন করা হবে।আমার মনে হয় আপনারা ইতোমধ্যে দেখেছেন। ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের মামলাও কমে যাচ্ছে। আবার মামলা করলে দ্রুত গ্রেফতার করা হচ্ছে না।’

তিনি বলেন, এ আইনে অনেক অহেতুক মামলা করা হচ্ছিল। এ প্রেক্ষাপটে ২০১৯ সালে আমি বলেছিলাম। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ করার পর তিনি ব্যবস্থা নিয়েছেন। আইনমন্ত্রী বলেন, আমি একটা জিনিস ব্রডলি বলে দিতে চাই, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, সোনার বাংলার স্বপ্নদ্রষ্টা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন ১৯৭২ সালের ৪ নভেম্বর আমাদের সংবিধান উপহার দেন, তখন তিনি পরিষ্কারভাবে দুটি কথা মৌলিক অধিকার হিসেবে সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত করে গেছেন। প্রথমটি হলো বাক্-স্বাধীনতা, আরেকটি হলো সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা। এগুলো আমাদের সংবিধানে মৌলিক অধিকার হিসেবে গ্যারান্টি। তিনি বলেন, আমি দৃঢ়ভাবে বলতে পারি, দেশে এমন কোনো আইন হবে না, যা স্বাধীন সাংবাদিকতায় বাধা হয়ে দাঁড়ায়।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আইনটি সাংবাদিকতায় বাধা সৃষ্টির জন্য করা হয়নি। টেকনোলজির উন্নয়নে যে অসুবিধাগুলোর সৃষ্টি হচ্ছে, সেগুলো মোকাবিলা করতে আইনটি করেছি। এই আইনে এখন যত্রতত্র কাউকে গ্রেপ্তার হচ্ছে না বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যেন কাউকে গ্রেপ্তার না করা হয়, সেই ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি তপন বিশ্বাস এবং সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হক।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

Back to top button