বিল গেটস: দুই দশকের মধ্যে আঘাত হানবে সর্বনাশা মহামারি

মার্কিন ধনকুবের বিল গেটস ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন, আগামী দুই দশকের মধ্যে আবারো নতুন কোনো মহামারি আঘাত হানবে বিশ্বজুড়ে। পরিচিত কোনো ভাইরাসের মাধ্যমেই এ মহামারি দেখা দিতে পারে, যা পুরো মানবজাতিকে ধ্বংস করে দিতে সক্ষম। খবর নিউজ উইক। গত রোববার এল দিয়ারোকে দেওয়া সাক্ষাতকারে বিল গেটস বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে প্রকৃতিতেই নতুন এই জীবাণু জন্ম নেবে। তিনি একে ‘বায়ো টেররিজম’ আখ্যা দিয়ে বলেছেন, আগামী দুই দশকের মধ্যে এই মহামারির আঘাত হানার আশঙ্কা ৫০ শতাংশ। একে প্রাকৃতিক আতঙ্ক উল্লেখ করে বিল গেটস মন্তব্য করেন, একবার ছড়িয়ে পড়তে পারলে পৃথিবী এই মহামারির ধ্বংসাত্মক রূপ দেখবে।

ওই মহামারি মোকাবেলায় এখন থেকেই প্রতিটি দেশের প্রস্তুতি নেওয়া, গবেষণার মাধ্যমে এর সম্ভাব্য সমাধান খুঁজে বের করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন বিল গেটস। এজন্য ৩ হাজার বিশেষজ্ঞ নিয়ে একটি টিম গঠনের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে অনুদান দেওয়ারও আহ্বান জানান গেটস। তিনি বলেন, নতুন এই মহামারি ঠেকাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উচিত প্রতি বছর ১০০ কোটি ডলার অনুদান দেওয়া। সংস্থাটির বাজেট ২৫ শতাংশ বৃদ্ধিরও প্রস্তাব দিয়েছেন গেটস।

করোনার মতো আরো মহামারির শঙ্কা করছেন বিল গেটস মাঙ্কিপক্স আতঙ্কে অনেকেই বলছে, এটিই হচ্ছে নতুন সেই মহামারি। তবে বিল গেটসের মতে, এমনটা হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। তার মতে, বিশ্বে করোনা হানা না দিলে মাঙ্কিপক্স নিয়ে মানুষ মাথাও ঘামাত না। তবে গেটস বলছেন, মাঙ্কিপক্স মহামারি আকার ধারণ না করলেও, কোনো কোনো অঞ্চলে এটি খারাপ পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে পারে।

করোনার তুলনায় অনেক কম মাত্রায় ছাড়ালেও এরই মধ্যে লাতিন আমেরিকা ও ইউরোপে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে মাঙ্কিপক্স। আফ্রিকা থেকে ভাইরাসটি ইউরোপীয় দেশগুলোতে ছড়িয়ে পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অবশ্য জানিয়েছে, মাঙ্কিপক্স নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার তেমন কিছু নেই। করোনার মতো এটি অতটা ছোঁয়াচে ও ভয়াবহ নয়। এর প্রতিরোধে করোনার মতো গণহারে টিকা দেওয়ারও কোনো প্রয়োজন নেই।

প্রযুক্তি ব্যক্তিত্ব বিল গেটস ডাক্তার কিংবা চিকিৎসাবিজ্ঞানী না হলেও করোনা মহামারির সময়ে ভ্যাকসিনেশনে তার অবদানের জন্য ‘ভ্যাকসিন ম্যাগনেট’ উপাধি লাভ করেছেন। ২০১৫ সালে গেটস তার বইয়ে মহামারি নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন, করোনার সাথে সেটি অনেকটাই মিলে গেছে। ফলে নতুন মহামারি নিয়েও গেটসের বক্তব্যকে একেবারে উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছে না।

Back to top button