জোবাইদা রহমানকে পলাতক ঘোষণা

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমানকে পলাতক ঘোষণা করেছেন আপিল বিভাগ।

বুধবার (১ জুন) প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ জোবায়দার দুর্নীতি মামলার ১৬ পাতার রায় প্রকাশ করেন।

লিখিত রায়ে আপিল বিভাগ বলেছেন, ২০০৮ সালে আদালতে আত্মসমর্পণ না করে জোবায়দার মামলা শুনে হাইকোর্ট সংবিধান লঙ্ঘন করেছে। জোবাইদা রহমানকে অতিরিক্ত সুবিধাও দেয়া হয়েছিল।

এ ছাড়া হাইকোর্টের দেয়া ৮ সপ্তাহের মধ্যে জোবাইদার আত্মসমর্পণের আদেশ বাতিল করা হয়। পলাতক আসামি দুর্নীতি মামলায় হাইকোর্টে কোন আবেদন করতে পারবে না। একই সঙ্গে ২০০৮ সাল থেকেই জোবাইদা পলাতক হিসেবে গণ্য হবেন বলে আপিল বিভাগের রায়ে উল্লেখ করা হয়।

এর আগে গত ১৩ এপ্রিল জোবাইদা রহমানের দুর্নীতি মামলা চলবে বলে রায় দেন আপিল বিভাগ।

উল্লেখ্য, ২০০৭ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর জ্ঞাত আয়বহির্ভূতভাবে চার কোটি ৮১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৬১ টাকার মালিকানা ও সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে জোবাইদার বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। পরে ওই বছরেই জোবায়দার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি মামলা বাতিলের প্রশ্নে রুলও জারি করেন আদালত।

এরপর জোবাইদার মামলা বাতিলের প্রশ্নে জারি করা রুল খারিজ করে ২০১৭ সালে ১২ এপ্রিল রায় দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে জোবাইদাকে আট সপ্তাহের মধ্যে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণেরও নির্দেশ দেন আদালত। পরে ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন জানান জোবাইদা।

Back to top button