পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে ১০ লাখ লোক উপস্থিতির প্রত্যাশা আ.লীগের

আগামী ২৫ জুন যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে পদ্মা সেতু। এদিন সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করবেন।

সেতু উদ্বোধনের পর সকাল ১১টায় কাঁঠালবাড়িতে জনসভা করবে আওয়ামী লীগ। উক্ত সমাবেশে ১০ লক্ষাধিক লোকের উপস্থিতি প্রত্যাশা করছে দলটি।

জনসভা সফল করতে বুধবার (১ জুন) দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সমন্বয় বৈঠকে নেতারা এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আগামী ২৫ জুন আমাদের স্বপ্নের পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন করবেন বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিনকে ঘিরে সারা দেশের মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা রয়েছে। উদ্বোধনের দিনটি কীভাবে উদযাপিত হবে তা নিয়ে আজকের বৈঠকে আমরা প্রাথমিক পরিকল্পনা করেছি।’

তিনি বলেন, ‘পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর সকাল ১১টায় পদ্মার পাড়ে কাঁঠালবাড়ি ফেরি ঘাটে জনসভা হবে। এই জনসভাকে সফল করতে দক্ষিণাঞ্চলের ২১টি জেলা ও ঢাকার আশপাশের মানুষের ব্যাপক উপস্থিতি হবে। এটি সফল করতে আমাদের আলোচনা হয়েছে। আমরা আশা করছি, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে আমাদের নেত্রীর যে জনসভাটি হবে, সেখানে লাখো মানুষের উপস্থিতির মধ্য দিয়ে একটি বিশাল জনসমুদ্রে পরিণত হবে। এই জনসমুদ্র হবে উৎসবের জনসমুদ্র।’

পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে দিনব্যাপী থাকবে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।সেখানে সবার অংশগ্রহণকে আমরা স্বাগত জানাবো।

নাছিম বলেন, ‘পদ্মা সেতু নিয়ে যদি কেউ কোনও নীলনকশা করে থাকে, তাহলে দেশের জনগণই তাদের উপযুক্ত জবাব দেবে কারণ এটি সারা বাংলাদেশের মানুষের আকাঙ্ক্ষা। তাই জনগণই তাদের প্রতিহত করবে। কেউ এটি নিয়ে কোনও ষড়যন্ত্র করতে পারবে না।’

Back to top button