বুস্টার ডোজ সপ্তাহ শুরু, এক কোটির লক্ষ্যমাত্রা

করোনা টিকার তৃতীয় ডোজ বা বুস্টার ডোজের বিশেষ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আজ শনিবার থেকে আগামী শনিবার পর্যন্ত এক কোটি মানুষকে বুস্টার ডোজ দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে মাঠে নেমেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক আজ শনিবার সকালে মানিকগঞ্জে করোনার টিকার এই বিশেষ ক্যাম্পেইন উদ্বোধন করবেন।

সকাল থেকে সারা দেশে টিকা দেওয়া চলবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের টিকা প্রয়োগ কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক।জানা যায়, সারা দেশের নির্ধারিত করোনার টিকা কেন্দ্রে সকাল ৯টা থেকে বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হবে। এ ছাড়া ইউনিয়ন পর্যায়ের কেন্দ্রগুলোতেও এই টিকা দেওয়া হবে।

করোনার টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার চার মাস পার করেছেন, এমন ব্যক্তিরাই বুস্টার ডোজ পাবেন। টিকা গ্রহণে ইচ্ছুক ব্যক্তির বয়স ১৮ বছরের বেশি হতে হবে। করোনার টিকা কার্ড সঙ্গে না থাকলে টিকা নেওয়া যাবে না।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, বাংলাদেশ প্রথম, দ্বিতীয় ও বুস্টার ডোজ দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিবেশী দেশ ভারতকে পেছনে ফেলেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী, এ পর্যন্ত ১ কোটি ৫৫ লাখ ৬১ হাজার মানুষকে করোনার টিকার তৃতীয় বা বুস্টার ডোজ দেওয়া হয়েছে। এ পর্যন্ত দেশের ৯ শতাংশ মানুষ বুস্টার ডোজ পেয়েছেন। এ সপ্তাহে আরও এক কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া সম্ভব হলে তৃতীয় ডোজের ক্ষেত্রেও বিশ্বের অনেক দেশের চেয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।

Back to top button