‘আমার ছেলের পোড়া দেহ এনে দাও, বাবার মুখটা দেখবো’

চট্টগ্রাম সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত হাবিবুর রহমানের ভোলার বাড়িতে মাতম চলছে।

তবে পরিবারের উপার্জনকারী সদস্যকে হারিয়ে দিশেহারা স্বজনরা। মাসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা অপেক্ষায় নিহত হাবিবের মরদেহের জন্য। সোমবার (৬ জুন) সরেজমিনে গিয়ে এই দৃশ্য দেখা যায়।

নিহত হাবিবুর রহমান (২৫) ভোলা সদর উপজেলার দক্ষিণ দিঘলদী ইউনিয়নে দক্ষিণ বালিয়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি বিএম কনটেইনার ডিপোতে কম্পিউটার অপারেটর হিসেবে দীর্ঘ ৭ বছর ধরে চাকরি করছিলেন।

জানা গেছে, শনিবার (৪ জুন) রাতে আগুন লাগার সময় ডিপোতে নাইট ডিউটি পালন করছিলেন হাবিবুর রহমান। এ সময় ভয়াবহ বিস্ফোরণে অন্য সকলের সঙ্গে তার প্রাণ যায়।

তবে তার মামা আলমগীর হাবিবুর রহমানের মরদেহ নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে রোববার (৫ জুন) রাতে ভোলার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন। নিহতের হাবিবুর রহমানের বাবা বলেন, ‘আমার ছেলের পোড়া দেহ এনে দাও, বাবার মুখটা দেখবো’।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

Back to top button