পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে যে উৎসব হবে, দেশের ৫০ বছরের ইতিহাসে তা হয়নি

জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী বলেছেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে আগামী ২৫ জুন মাদারীপুরের শিবচরস্থ বাংলাবাজার ঘাট এলাকায় ঐতিহাসিক জনসভা অনুষ্ঠিত হবে। এই সমাবেশে ১০ লক্ষাধিক মানুষের সমাগম হবে। সেখানে ৩০ জুন পর্যন্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকবে। সমাবেশকে ঘিরে নৌপথে আগমনকারীদের সুযোগ সুবিধার জন্য বাংলাবাজার ঘাট এলাকায় নৌজেটি ও পন্টুনের সুবিধাদি বৃদ্ধি করা হবে।

আজ শনিবার মাদারীপুরের শিবচরস্থ বাংলাবাজার ঘাট এলাকা পরিদর্শনকালে চীফ হুইপ এসব কথা বলেন। এসময় উপস্থিত নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি বলেন, গর্বের পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে যে উৎসব হবে; দেশের ৫০ বছরের ইতিহাসে তা হয়নি। ১০ লক্ষাধিক মানুষের সমাবেশ ঘটবে। দেশের ১৭ কোটি মানুষের দৃষ্টি থাকবে এখন এই উৎসবের দিকে।

বাংলাবাজার ঘাট থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়াঘাটে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে প্রতিমন্ত্রী বলেন, শিমুলিয়ায় ফেরিঘাট চালু থাকবে। সারাদেশে ফেরির চাহিদা রয়েছে। আরো ১২টি নতুন ফেরি সংগ্রহ করা হচ্ছে। পদ্মা সেতু চালু হলেও শিমুলিয়াঘাটে মানুষের চাহিদা বেড়ে যাবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, নদীকেন্দ্রিক পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠবে। শিমুলিয়ায় পর্যটন কেন্দ্রিক ইকোজোন গড়ে তোলা হবে। নদীকে থামিয়ে রাখা যাবে না। নদী প্রবাহমান। নদীকে ঘিরে জীবন জীবিকা থামিয়ে দেয়া দেয়া যাবে না। জীবন জীবিকা অব্যাহত থাকবে। কেউ বেকার থাকবে না।

নৌ প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে কেউ বেকার থাকবে না; বরং কর্মসংস্থান হবে। গত ১৩ বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে নৌ, সড়ক, রেল ও আকাশপথে যোগাযোগ ব্যবস্থায় অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। ১০ হাজার কিলোমিটার নৌপথের উন্নয়ন করা হচ্ছে। ৩৭টি নদী বন্দর এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর উন্নয়ন, ছয় লেন ও চার লেনের সড়ক, আকাশপথে কানাডাসহ আন্তর্জাতিক রুটে বিমান চলাচল হচ্ছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে রোল মডেল।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথিবীর দক্ষ প্রশাসকদের মধ্যে অন্যতম। তার সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশ নিরন্তর গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে।

মাদারীপুর জেলা পরিষদের প্রশাসক মুনির চৌধুরী, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক, জেলা প্রশাসক রহিমা বেগম এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র : বাসস

Back to top button