জাতিসংঘে ভারতকে সমর্থন দেয়ার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান পাকিস্তানের

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের নতুন স্থায়ী সদস্য হিসেবে ভারতকে সমর্থন দেয়ার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এর আগে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি দাবি করেন, ভারতকে এই সমর্থন দিয়েছে পাকিস্তান। এমন অভিযোগের জবাবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শুক্রবার বলেছে, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে নতুন স্থায়ী সদস্য যোগ করায় বিরোধী অবস্থানে পাকিস্তান। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জিও নিউজ।

ক্ষমতাচ্যুত পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফের (পিটিআই) সহ-সভাপতি শাহ মেহমুদ কুরেশি দাবি করেন যে, তিনি শুনেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি যুক্তরাষ্ট্রকে নিশ্চয়তা দিয়েছেন। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের স্থায়ী সদস্য হওয়ার বিষয়ে পাকিস্তানের জোট সরকার বিরোধিতা করবে না। এ বিষয়ে তিনি পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছ থেকে ব্যাখ্যা দাবি করেন। পিটিআইয়ের এই নেতা বলেন, পাকিস্তান যদি ভারতকে এ বিষয়ে সমর্থন দেয় তাহলে তা হবে বড় ধরনের নীতির পরিবর্তন।

এ বিষয়ে জনগণ উদ্বিগ্ন। জবাবে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অসীম ইফতিখার আহমেদ বলেন, দখলিকৃত কাশ্মীরে ভয়াবহ ও পর্যায়ক্রমিকভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে ভারত। এ জন্য তাদের জবাবদিহি করা উচিত। এর প্রেক্ষিতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে পাকিস্তানের অবস্থান পরিষ্কার, দ্ব্যর্থহীন এবং সামঞ্জস্যপূর্ণ। ইউনাইটিং ফর কনসেনসাস (ইউএফসি) গ্রুপের অন্য অংশীদারদের সঙ্গে নিয়ে একত্রিতভাবে নীতিগতভাবে নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য বাড়ানোর বিরোধী পাকিস্তান।

শাহ মেহমুদ কুরেশি প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন। তিনি এ সময় বলেন, তাদের সরকারের অর্থনৈতিক অগ্রগতিকে অনুমোদন দিয়েছে ইকোনমিক সার্ভে ২০২১-২২। তার ভাষায়, এমন কি আমাদের পিটিআই নেতৃত্বাধীন সরকারের পারফরমেন্সকে স্বীকৃতি দিয়েছে আমাদের বিরোধীপক্ষ বর্তমান সরকার।

Back to top button