জাহাজ ডুবে ১৬ হাজার ভেড়ার প্রাণহানি

প্রায় ১৬ হাজার ভেড়াকে নিয়ে সৌদি আরবের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করা সুদানের একটি জাহাজ ডুবে গেছে। রোববার ভোরে সুদানের লোহিত সাগরের সুয়াকিন বন্দরের কাছে জাহাজডুবির এই ঘটনায় সব ভেড়ার প্রাণহানি ঘটেছে। তবে জাহাজের ক্রুরা বেঁচে গেছেন বলে দেশটির বন্দর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

জাহাজটি সুদান থেকে সৌদি আরবে পশু রপ্তানি করছিল। ধারণ ক্ষমতার চেয়ে কয়েক হাজার বেশি পশু বোঝাই করার কারণে জাহাজটি ডুবে যায়। সুদানের জ্যেষ্ঠ একজন বন্দর কর্মকর্তা ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, বদর ১ নামের জাহাজটি রোববার ভোরের দিকে ডুবে গেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সুদানিজ এই কর্মকর্তা বলেন, জাহাজটিতে ১৫ হাজার ৮০০ ভেড়া ছিল; যা ধারণ ক্ষমতার তুলনায় অনেক বেশি।

তিনি বলেন, জাহাজটিতে করে মাত্র ৯ হাজার ভেড়া পরিবহন করার কথা ছিল। অন্য আরেকজন কর্মকর্তা বলেছেন, জাহাজের সব ক্রুকে উদ্ধার করা হয়েছে। ভয়াবহ এই দুর্ঘটনার অর্থনৈতিক এবং পরিবেশগত প্রভাব নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি।

ওই কর্মকর্তা বলেন, ডুবে যাওয়া জাহাজ বন্দরের কার্যক্রমে প্রভাব ফেলছে। জাহাজে বহন করা বিপুলসংখ্যক প্রাণীর মৃত্যু পরিবেশের ওপর প্রভাব ফেলবে।

এর আগে, গত মাসে সুদানের সুয়াকিন বন্দরের একটি কার্গো এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। কয়েক ঘণ্টার সেই অগ্নিকাণ্ডে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয় বন্দরের। তবে কী কারণে অগ্নিকাণ্ডের ওই ঘটনা ঘটেছিল তা পরিষ্কার নয়। অগ্নিকাণ্ডের কারণ জানতে সেই সময় কমিটি গঠন করা হলেও এখনও তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়নি।

সুদানের ঐতিহাসিক বন্দর নগরী সুয়াকিন এখন আর দেশটির প্রধান বৈদেশিক বাণিজ্য কেন্দ্র নয়। এক সময় এই বন্দর নগরী সুদানের আমদানি-রপ্তানির প্রধান কেন্দ্র থাকলেও এখন লোহিত সাগরের উপকূল বরাবর প্রায় ৬০ কিলোমিটার দূরের পোর্ট সুদান সেই তকমা পেয়েছে।

যাযাদি/ এস

Back to top button