ফাতিমাকে (র.) নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র নিষিদ্ধ করল মরক্কো

মহানবী হযরত মুহাম্মদের (স.) মেয়ে ফাতিমাকে (র.) নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র ‘দ্য লেডি অব হেভেন’ নিষিদ্ধ করেছে মরক্কো সরকার। সিনেমাটিতে ইসলামের প্রতিষ্ঠিত ইতিহাসকে ‘বিকৃত’ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। খবর বিবিসি।

এ বিষয়ে মরক্কোর সিনেমাটোগ্রাফিক সেন্টার বা সিসিএম এক বিবৃতিতে উল্লেখ করেছে, মরক্কোর কোনো সিনেমা হলে এ চলচ্চিত্র প্রদর্শনের অনুমতি দেওয়া হবে না। মরক্কোর উলামা কাউন্সিল থেকেও এই চলচ্চিত্রের তীব্র নিন্দা জানানো হয়েছে। উলামা কাউন্সিলের বক্তব্য, চলচ্চিত্রে মহানবীকে (স.) চিত্রায়ন করা একটি জঘন্য কাজ। কোনোভাবেই তা মুসলিমদের কাছে গ্রহণযোগ্য হতে পারে না।

ফাতিমার (রা.) জীবনী নিয়ে তৈরি এটাই প্রথম কোনো চলচ্চিত্র। এতে মহানবীসহ (স.) অন্যান্য চরিত্র তুলে ধরা হয়েছে। ইসলামি ধর্মবিশ্বাস অনুযায়ী, কোনো মাধ্যমেই মহানবীকে (স.) চিত্রায়ণ করা অপরাধ। অবশ্য চলচ্চিত্রটির নির্মাতারা বলছেন, এ চলচ্চিত্রে কোনো ব্যক্তির দ্বারা এ পবিত্র চরিত্রগুলো চিত্রায়ণ করা হয়নি। আলো ও ভিজ্যুয়াল এফেক্ট ব্যবহার করা হয়েছে।

নির্মাতাদের এমন বক্তব্যেও মুসলমানদের ক্ষোভ প্রশমিত হচ্ছে না। বিভিন্ন দেশে এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা অব্যাহত রয়েছে। এরইমধ্যে বিক্ষোভ ও আন্দোলনের মুখে সিনেমাটির প্রদর্শনী বন্ধ রেখেছে ব্রিটিশ সিনেমা চেইন সিনেওয়ার্ল্ড।

Back to top button