ইভিএমে আঙুলের ছাপ না মেলার অভিযোগ, যা বললেন রিটার্নিং কর্মকর্তা

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণে ধীরগতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া আঙুলের ছাপ মিলছে না বলেও অভিযোগ করেছেন কিছু ভোটার।

এসব অভিযোগের বিষয়ে কথা বলেছেন রিটার্নিং অফিসার শাহেদুন্নবী চৌধুরী। আজ বুধবার সকাল ১০টার দিকে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট স্কুল কেন্দ্রে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ধীরগতির বিষয়টা হচ্ছে, এখানে একজন ভোটার কিন্তু তিনটা ব্যালটে ভোট দেন। তারা ভোট দেওয়ার আগে চিন্তা করতে সময় নেন। তাছাড়া এবারই প্রথমবার ইভিএমে ভোট দিচ্ছেন। এসব কারণে কিছুটা সময় লাগতে পারে।

ইভিএমে কোনো কোনো ভোটারের আঙুলের ছাপ মিলছে না- এমন অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, প্রার্থীরা ভোটারের নাম ও স্লিপ দিয়েছেন। যথাযথভাবে আইডেন্টিফাই করা হয়েছে। অনেক সময় রেখার কারণে আঙুলের ছাপ মিলতে সমস্যা হতে পারে। তবে যাদের ফিঙ্গার মিলছে না শেষ পর্যন্ত তারা ভোট দিতে পারবেন বলে আশাবাদী এই রিটার্নিং কর্মকর্তা।

ভোটের পরিবেশ সম্পর্কে রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী বলেন, সুষ্ঠুভাবে ভোট হচ্ছে বলে সব প্রিসাইডিং অফিসার ও এজেন্টরা জানিয়েছেন।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার ইভিএম নিয়ে শঙ্কার কথা জানিয়েছিলেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত। তিনি বলেছেন, এবারই কুমিল্লায় ইভিএমে প্রথম ভোট হচ্ছে। সেক্ষেত্রে ভোট দিতে ভোটারদের সমস্যা হতে পারে। তাই নির্বাচন কমিশন থেকে দুই-একজন এক্সপার্টকে রাখা হোক, কেউ ভোট দিতে সমস্যায় পড়লে তাকে সাহায্য করার জন্য। আজ বুধবার সকাল ৮টায় কুসিক নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন পাঁচজন প্রার্থী।

Back to top button