আমরা প্রতিদিন তো এত খারাপ খেলব না : ইমরুল

সিলেট সানরাইজার্সের বিপক্ষে আজ শনিবার কষ্টার্জিত জয় দিয়ে বিপিএল শুরু করেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। মাত্র ৯৭ রানের টার্গেট তাড়ায় নেমে তারা ৮ উইকেট হারিয়ে ফেলে! জয় পেয়েছে মাত্র ৮ বল বাকি থাকতে। দুইবারের চ্যাম্পিয়ন দলটির এই হাল হওয়া নিয়ে অবশ্য মোটেও চিন্তিত নন অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। তিনি দলের এই বাজে পারফরম্যান্সের পেছনে ব্যাটারদের দায় দেওয়ার পাশাপাশি পিচের সমালোচনাও করেছেন।

ম্যাচ শেষে ইমরুল কায়েস বলেন, ‘ম্যাচ জিতলে দলের কনফিডেন্স বেড়ে যায়। যেহেতু এটা টুর্নামেন্টে আমাদের প্রথম ম্যাচ। আমরা অবশ্যই দলগত খেলাটা খেলতে পারিনি। তারা খুব ভালো বোলিং করেছে। আশা করি পরের ম্যাচগুলোতে এটা ঠিক হয়ে যাবে।

আসলে প্রথম ম্যাচে সব দলই কিছুটা স্ট্রাগল করে কন্ডিশনের সঙ্গে এবং পরিকল্পনার সঙ্গে। আমি বলব যে, ম্যাচটা জিততে পেরে আমি খুশি। ‘এর পরই ইমরুল উইকেটের সমালোচনা করেন, ‘ম্যাচের প্রথমার্ধে উইকেট বেশ কঠিন ছিল। আমাদের বোলাররা ভালো বোলিং করেছে।

আসলে লো স্কোরিং ম্যাচে রান চেজিং সব সময়ই একটু চ্যালেঞ্জিং হয়। কারণ পরিকল্পনা করাটা কঠিন হয়ে যায়। শুরুতে উইকেট পতন হলে পরের ব্যাটার চায় ক্রিজে গিয়ে একটু দেখে খেলতে। তাই চাপটা বেড়ে যায়। তাই আমার মতে, লো স্কোরিং ম্যাচ ফাস্ট ব্যাটিংয়েই শেষ করা উচিত। না হলে ম্যাচগুলো কঠিন হয়ে যায়। তবে আমরাও ভালো ব্যাটিং করতে পারিনি। দ্রুতই এই সমস্যা সমাধান করব এবং পরের ম্যাচে কমব্যাক করব। ‘

টুর্নামেন্টের এখনো অনেক বাকি। তাই এখনই দল নিয়ে মন্তব্য করার পক্ষপাতী নন ইমরুল, ‘আমরা আসলে অনেক ভালো টিম। এভাবে তো প্রতিদিন কেউ ক্রিকেট খেলবে না। কেউ না কেউ, বড় ব্যাটাররা যারা আছে তারা কিন্তু বড় স্কোর করবে। যখন বড় স্কোর দেখবেন, তখন দেখবেন পরের ব্যাটারদের জন্য কাজটা সহজ হয়ে যাবে। তা ছাড়া স্পিন ট্র্যাকে চাইলেও সিঙ্গেল বের করা যায় না।

স্লো ট্র্যাকে চাইলেও পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারবেন না। দেখেশুনে ব্যাটিং করতে হয়। আবার বেশি দেখেশুনে ব্যাট করতে গেলে উইকেট পড়তে থাকে। যে কারণে দল চাপে পড়ে যায়। আমাদের সামনে ম্যাচ আছে, আমরা অবশ্যই ভালো করব। ‘

Back to top button