১৭ কোটি মানুষের দৃষ্টি পদ্মার পাড়ে: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেছেন, ‘নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের ফলে বাংলাদেশের আর্থিক সক্ষমতা ও সাহস বৃদ্ধি পেয়েছে। এই নির্মাণের মাধ্যমে বাংলাদেশ ৫০ বছর এগিয়ে গেল। পদ্মা সেতুর অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আগামীতে বড় প্রকল্প নিজস্ব অর্থায়নে করার সক্ষমতা তৈরি হলো। আগামী ২৫ জুন ১৭ কোটি মানুষের দৃষ্টির মোহনা হবে পদ্মার পার।’

রবিবার (১৯ জুন) শরীয়তপুর জেলা প্রশাসনের সাথে ২৫ জুন পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রস্ততি সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এনামুল হক শামীম বলেন, ‘পদ্মা সেতু শুধু ইট, পাথর আর স্টিলের সেতু নয়, এটি আমাদের আবেগ ভালবাসা ও আত্মবিশ্বাসের প্রতীক। স্বাধীনতার পর আমাদের এটি বড় অর্জন। এই প্রকল্পের মাধ্যেমে জনগণের সাথে সরকারের সম্পর্ক আরও মজবুত হয়েছে। কারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই ঘোষণা করেছেন জনগণের সাড়া না পেলে পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভবত হতো না। এ সেতু নির্মাণের ফলে দক্ষিণবঙ্গের যোগাযোগ ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন হবে। কর্মসংস্থান বৃদ্ধি পাবে।’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান স্মরণকালের সেরা হবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম বলেন, ‘পদ্মা সেতু উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে সেতুর দক্ষিণপাড়ের ২১ জেলার মানুষের মধ্যে আনন্দের বন্যা শুরু হয়েছে। সবাই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শরীক হতে চান। সংযুক্ত হতে চান ইতিহাসের সাক্ষী হিসেবে। এ জন্য যারা প্রবাসী তারাও যোগাযোগ রাখছেন। কেউ কেউ ইতোমধ্যে দেশে ফিরেছেন। ফেরার অপেক্ষায় কেউ কেউ। বঙ্গবন্ধুকন্যা ক্ষমতায় ছিল বলেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী যে স্বপ্ন দেখান সেটাকে বাস্তবায়ন করেন।’
জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসানের সভাপতিত্বে সভায় ইকবাল হোসেন অপু এমপি, নাহিম রাজ্জাক এমপি, পারভিন হক সিকদার এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দেসহ জেলা প্রশাসনের সব ঊর্ধ্বতন কর্মকতা উপস্থিত ছিলেন।

Back to top button