গাঁজা সেবনকালে তিন বহিরাগতসহ কুবি শিক্ষার্থী আটক

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) মাদক সেবনের সময় বিশ্ববিদ্যালয়টির একজন শিক্ষার্থীসহ মোট চারজনকে আটক করেছে কুবি প্রশাসন। গতকাল রোববার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পেছন থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আনাস, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী রাসেল, কুমিল্লা সিটি কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী খাদিজা আক্তার নিশা ও ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আমিনুল ইসলাম। পরবর্তী সময়ে তাদের মুচলেকা নিয়ে অভিভাবকদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, রোববার বিকেল সাড়ে ৬টার দিকে ক্যাম্পাসের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পেছন থেকে শিক্ষার্থীরা ধোঁয়া ও বিদঘুটে গন্ধ পান৷ এরপর ধোঁয়ার উৎস খুঁজতে পেছনে গেলে তারা দেখতে পান সেখানে অভিযুক্তরা বসে মাদক সেবন করছেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে ফোন দিয়ে বিস্তারিত জানালে সহকারী প্রক্টর মো. ফয়জুল ইসলাম ফিরোজ এসে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন।

পরবর্তী সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিসে প্রক্টরিয়াল বডির সামনে আটককৃতদের আনা হলে খাদিজা আক্তার নিশি নামের একজন নিজেকে বারবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পরিচয় দেন। তবে জেরার মুখে এক পর্যায়ে তার আসল পরিচয় কুমিল্লা সিটি কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী বলে জানা যায়।

গাঁজা সেবনের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে জানতে চাইলে প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) কাজী ওমর সিদ্দিকী বলেন, যারা বহিরাগত তারাও সবাই শিক্ষার্থী। ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তাদের অভিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হবে। তার জবাবের পর আমরা প্রক্টরিয়াল বডি বসে তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবো।

তিনি আরও বলেন, আজকের ঘটনা থেকে আমাদের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি হলো এসব মাদক যারা সরবরাহ করে তাদের সোর্স পাওয়া। আমরা সেসব তথ্য পুলিশের কাছে দিয়েছি, তারা ব্যবস্থা নেবেন। এ ছাড়া ক্যাম্পাসে বহিরাগতরা যাতে অবাধে ঢুকে পরিবেশ নষ্ট না করতে পারে সে বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

Back to top button