জানা গেল মৌসুমীর ‘ভাঙন’র নতুন খবর

গত কয়েকদিন ধরেই দেশের মিডিয়াপাড়ায় আলোচনায় চিত্রনায়ক জায়েদ খান, ওমর সানী ও চিত্রনায়িকা মৌসুমী ইস্যু। বক্তব্য, পাল্টা বক্তব্য, অভিযোগে জল গড়িয়েছে বহুদুর। তবে শেষ পর্যন্ত দূরত্ব মিটিয়ে এক হয়ে গেছেন সানী-মৌসুমী। যা ভক্তদের মনে দিয়েছে স্বস্তি। আর এই স্বস্তির মাত্রাকে এবার আরো বাড়িয়ে দিয়েছে মৌসুমীর সিনে জীবনের নতুন খবর। বহুল অপেক্ষার পর অবশেষে প্রকাশ পেল মৌসুমী ও ফজলুর রহমান বাবু অভিনীত ‘ভাঙন’ এর অফিসিয়াল পোস্টার।ছবিটি পরিচালনা করেছেন মির্জা সাখাওয়াৎ। আজ রোববার (১৯ জুন) রাতে প্রকাশ করা হয়েছে এর অফিসিয়াল পোস্টার। পোস্টারে দেখা দিয়েছেন মৌসুমী ও ফজলুর রহমান বাবু। এর মধ্যে মৌসুমীকে দেখা গেছে মাথায় একটি ঝুড়ি নিয়ে হাঁটছেন। আর বাবু বাজাচ্ছেন বাঁশি। নির্মাতা সূত্রে জানা গেছে, সিনেমায় মৌসুমী মূলত একজন হকারের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। যিনি চুড়ি-ফিতা এসব বিক্রি করেন।

এর আগে ২০২০-২১ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পেয়ছে ‘ভাঙন’। নির্মাতা মির্জা সাখাওয়াৎ হোসেন জানান, সিনেমার কাজ শেষ। শিগগিরই এটি মুক্তি দেবেন। হকার, পতিতা, পকেটমার, বংশীবাদকসহ বিভিন্ন প্রান্তিক ও ছিন্নমূল মানুষের গল্প তুলে ধরা হবে সিনেমাটিতে। এতে মৌসুমী-বাবু ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন সাবেরী আলম, প্রাণ রায় প্রমুখ।

তিনি আরো জানান, সিনেমার গল্পে উঠে আসবে একটি রেলস্টেশনে এসে জড়ো হওয়া কিছু প্রান্তিক ও ছিন্নমূল মানুষের কথা। এখানে আছে হকার, পতিতা, পকেটমার, বংশীবাদকসহ বিভিন্ন ইতিবাচক ও নেতিবাচক মানুষ। তাদের জীবন যাত্রা, বেঁচে থাকা, প্রত্যাশার গল্প থাকছে ‘ভাঙন’ সিনেমায়। ভাঙন সিনেমায় চুড়ি-ফিতা বিক্রেতার চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। আর ফজলুর রহমান বাবুকে দেখা যাবে ভিক্ষাবৃত্তির পেশায়। প্রাণ রায় অভিনয় করেছেন পকেটমারের চরিত্রে। এরই মধ্যে সিনেমার প্রায় কাজ শেষ। সিনেমাটি শিগগিরিই পর্দায় আসছে। প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন ধরে স্বামী ওমর সানীর সঙ্গে মৌসুমীর মুখ দেখাদেখি, এমনকি কথাও বন্ধ ছিল। সানীর দাবি, এই দূরত্বের জন্য দায়ী জায়েদ খান। তিনি মৌসুমীকে বিরক্ত করতেন। এ নিয়ে শিল্পী সমিতিতেও অভিযোগ দেন সানী।শুধু তাই নয়, অভিনেতা ডিপজলের ছেলের বিয়ের আয়োজনে জায়েদ খানকে চড়ও মারেন ওমর সানী। বিপরীতে সানীকে পিস্তল দেখিয়ে হুমকি দেন জায়েদ।

এরপর মৌসুমী এক অডিও বিবৃতিতে জানান, জায়েদ তাকে কখনো বিরক্ত করেননি। ফলে বিষয়টি ভিন্ন দিকে মোড় নেয়। পরে অবশ্য মৌসুমী-সানীর পুত্র ফারদিন মুখ খোলেন। তিনি পুরো বিষয়টি খোলাসা করেন এবং বাবা-মা’র মধ্যকার ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটান।

Back to top button