কাজ পর্ন দেখা, বেতন ঘণ্টায় দেড় হাজার টাকা!

স্কুল জীবনে বইয়ের পিছনে লুকিয়ে প্রাপ্তবয়স্কদের বই বা ছবি দেখেছে বহু লাস্ট বেঞ্চারই। অফিস জীবনেও এসেও সেই অভ্যাস যায়নি এমনও শোনা যায়। পর্ন ছবির নেশায় জীবন বরবাদ করেছেন, এমন মানুষও বিরল নন।

কিন্তু ধরুন যদি এমনটা হয়, কাউকে চাকরিই দেওয়া হল শুধুমাত্র পর্ন ছবি এবং ভিডিও দেখার জন্য। আর হ্যাঁ, সেই কাজের জন্য যথাযথ বেতনও পাবেন সেই কর্মী। অবাক হচ্ছেন নিশ্চয়ই শুনে। কিন্তু এমন আশ্চর্য চাকরিও রয়েছে এই দুনিয়ায়। শুনলে আরও অবাক হবেন, এই চাকরির জন্য আবেদন করছিলেন অন্তত ৯০ হাজার জন।

শেষ পর্যন্ত সবাইকে হারিয়ে সেই চাকরি পেলেন ২২ বছর বয়সী এক তরুণী। আর যে কাজের জন্য তিনি নিয়োগ পেলেন সে কাজে বেতন প্রতি ঘণ্টায় দেড় হাজার টাকারও বেশি! অবাক হলেও ঘটনাটি সত্যি। এটি ঘটেছে আমেরিকায়। একটি জনপ্রিয় ‘এথিকাল পর্নগ্রাফি ওয়েবসাইট’ তথ্য বিশ্লেষক পদে নিযুক্ত করছে রেবেকা ডিক্সন নামক এক তরুণীকে।

চাকরির বিজ্ঞাপন প্রকাশ পেতেই সারাবিশ্ব থেকে অনেকে পদটিতে চাকরির জন্য আবেদন করেছিলেন। সবাইকে টেক্কা দিতে পেরে স্বাভাবিকভাবেই বেশ খুশি স্কটল্যান্ড নিবাসী রেবেকা। কিন্তু কাজটি কি নিছক পর্নগ্রাফি দেখা? বিজ্ঞাপনটি কিন্তু তা বলছে না।

নিজের ইচ্ছায় এই ধরনের ছবি দেখা আর কর্ম সূত্রে এই ছবি দেখা, একেবারেই এক নয় বলে মত বিশেষজ্ঞদের। ছবিগুলোতে কী ধরনের ভাষা প্রয়োগ করা হচ্ছে, কোন ধরনের সাজ পোশাকে ধরা দিচ্ছেন অভিনেতারা কিংবা কত বার মেহন হচ্ছে একটি ভিডিওতে- সব তথ্যই লিখে রাখতে হবে তাকে। শুরু থেকে শেষ, কোনো মুহূর্তই বাদ দেওয়া যাবে না। আপাতত নিজের বাড়ি থেকেই কাজ করতে হবে রেবেকাকে।

চাকরি পেয়ে রেবেকার বক্তব্য, আমি এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না! আমি খুবই উদার মনের মানুষ। কাজটি আমার জন্য একেবারে উপযুক্ত। তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও অস্থায়ী ভিত্তিতে অপর একটি পর্নগ্রাফি ওয়েবসাইটের হয়ে তথ্য বিশ্লেষণের কাজ করেছেন রেবেকা। খবর নিউ ইয়র্ক পোস্ট।

Back to top button